অবৈধ অ্যাকশনে অভিযুক্ত ডিপিএলের চার বোলার

Share Button

অবৈধ বা নিয়ম বহির্ভূত অ্যাকশনে বল করার অপরাধে অভিযুক্ত হয়েছেন সর্বশেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে খেলা চারজন বোলার। এদের সবাই স্পিনার।

তারা হচ্ছেন- সঞ্জিত সাহা, আসিফ আহমেদ রাতুল, নুরুজ্জামান মাসুম ও সফিউল হায়াত। তন্মধ্যে সঞ্জিত সাহা ডিপিএলে খেলেছেন কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে, আসিফ আহমেদ রাতুল খেলেছেন প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে, নুরুজ্জামান মাসুম খেলেছেন পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে এবং সফিউল হায়াত খেলেছেন ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবের হয়ে।

Also Read - বাংলাদেশ সফরে আসতে রাজি ওয়ার্নার

অভিযোগ ওঠায় শীঘ্রই অ্যাকশন পরীক্ষায় বসতে হচ্ছে চার বোলারকে। এ ব্যাপারে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম ম্যানেজার নাসির আহমেদ। তিনি জানান, আগামী সপ্তাহেই হতে পারে এই চার বোলারের অ্যাকশন পরীক্ষা।

তিনি আরও বলেন, ‘সঞ্জিত সাহা সম্ভাবনাময় ক্রিকেটার। আমরা আশঙ্কা করছি সে তার পূর্বের ত্রুটিযুক্ত অ্যাকশনে ফিরে গিয়েছে। আমরা তা নিশ্চিত হতে চাই।’

এর আগেও একবার অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন সঞ্জিত সাহা- সেটি অবশ্য বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে। গত বছর অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ চলাকালে তার বোলিং অ্যাকশন দেখে সন্দেহ প্রকাশ করেন আইসিসির ম্যাচ অফিশিয়ালরা।

উল্লেখ্য, মিরপুরে চলমান জাতীয় দলের প্রস্তুতি ক্যাম্পে নিয়মিত অংশ নিচ্ছেন সঞ্জিত। সেখানে তার কাজ ব্যাটসম্যানদের নেটে বল করা।

অবৈধ বোলিং অ্যাকশন নিয়ে বিগত বছরগুলোতে বেশ সোচ্চার দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিসিবি। ইতোপূর্বে বাংলাদেশের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার অবৈধ অ্যাকশনের দায়ে ক্রিকেট থেকে দূরে থেকেছেন, তাদের মধ্যে আছেন বর্তমানের বেশ কয়েকজন নামকরা ক্রিকেটারও। এ নিয়ে বেশ আলোচনা-সমালোচনাও হয়েছে দেশের ক্রিকেট-পাড়ায়। জাতীয় পর্যায়ে উঠে আসার পর ভবিষ্যতে কোনো বোলারকে যাতে সমস্যার সম্মুখীন হতে না হয় সেজন্যই বোলিং অ্যাকশন নিয়ে বিসিবির এতো মাথাব্য়থা।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম