অ্যান্ডারসনের নৈপুণ্যে বড় লিডের পথে ইংল্যান্ড

0


জেমস অ্যান্ডারসন ও মইন আলির বোলিং তোপে পড়েছে দক্ষিন আফ্রিকা। অ্যান্ডারসনের বোলিং নৈপুণ্যে এখন বড় লিড নেওয়ার পথে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনশেষে দক্ষিন আফ্রিকার চেয়ে ১৪২ রান এগিয়ে আছে ইংলিশরা।

দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে নেমে স্কোরবোর্ডে মাত্ত ১১ রান যোগ করেন বেয়ারস্টো ও জোনস। ৪ রান করে কাগিজো রাবাদার শিকার হন জোনস। মইন আলি বিদায় নেন থিতু হওয়ার আগেই। ৩ চারে ১২ বলে ১৪ রান করে রাবাদার বলে ফিরে যান মইন। দ্রুত দুই উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে ইংলিশরা।

৩ বলে ৭ রান করে মর্নে মরকেলের বলে বোল্ড হন স্টুয়ার্ট ব্রড। এরপর শেষ উইকেটে জেমস অ্যান্ডারসনকে সাথে নিয়ে ৫০ রানের জুটি গড়েন জনি বেয়ারস্টো। অর্ধশতক পূর্ণ করে শতকের পথে অগ্রসর হচ্ছিলেন এক প্রান্ত আগলে রাখা বেয়ারস্টো। কিন্তু ৯৯ রান করে মহারাজের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন তিনি। এক রানের আফসোস নিয়ে ফিরে যান সাজঘরে। ৩৬২ রানের পুঁজি পায় ইংল্যান্ড।

Also Read - ভালো করতে মরিয়া সবাই, পেসাররা শিখছেন রিভার্স

জবাবে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ওভারেই উইকেট হারায় প্রোটিয়ারা। ওপেনার এলগারকে এলবিডব্লিউ করেন অ্যান্ডারসন। এরপর আমলা ও কুন মিলে ৪৭ রানের জুটি গড়েন। বড় ইনিংসের সম্ভাবনা জাগিয়েছিলেন আমরা। ৩৫ বলে ৩০ রান করে রোলান্ড-জোনসের শিকার হন তিনি। দলীয় ৮৪ রানের মাথায় ফিরেন কুন (২৫)। তাকে ফেরান মইন আলি।

প্রতিরোধ গড়ে তুলেন বাভুমা ও ফাফ ডু প্লেসিস। ৪৮ রানের জুটি গড়েন দুজন। তাদের জুটি ভাঙেন জেমস অ্যান্ডারসন। বোল্ড করেন বাভুমাকে। এক বল পরেই ফাফ ডু প্লেসিসকেও বোল্ড করেন অ্যান্ডারসন। এ দুই উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারায় চলে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

এরপর আর ঘুরে দাঁড়ানো হয়নি। ছিল বড় জুটির অভাব। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে দক্ষিন আফ্রিকা। দিনের শেষ বলে তারা হারায় রাবাদাকে। ৯ উইকেটে ২২০ রান করে দিন শেষ করেছে দক্ষিন আফ্রিকা। চার উইকেট শিকার করেছেন অ্যান্ডারসন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ ইংল্যান্ড ৩৬২/১০ (১ম ইনিংস)
বেয়ারস্তো ৯৯, স্টোকস ৫৮, রুট ৫২
রাবাদা ৪/৯১, মহারাজ ২/৫৮

দক্ষিন আফ্রিকা ২২০/৯ (১ম ইনিংস)
বাভুমা ৪৬, আমলা ৩০, প্লেসিস ২৭
অ্যান্ডারসন ৪/৩৩, ব্রড ২/৪১

-আজমল তানজীম সাকির, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম ডট কম