এ যেন রেকর্ডের রাত!

0

বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) রাতে ইয়র্কশায়ারের অ্যাডাম লাইথ এবং কেন্টের জো ডেনলি ও ড্যানিয়েল বেল-ডামমন্ড ন্যাটওয়েস্ট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টের সব রেকর্ড ভেঙ্গে দিয়েছেন।

লাইথ মাত্র ৭৩ বলে করেছেন ১৬১ রান। ইনিংসে ছিল ২০ চার আর ৭ টি ছক্কা। গতকাল নর্থামশায়ারের বিপক্ষে ম্যাচে এই কীর্তি গড়েন অ্যাডাম লাইথ। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইলে এখনো ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডধারী। ২০১৩ সালে আইপিএলে ৬৬ বলে ১৭৫ রান করেছিলেন এই ব্যাটিং দানব। তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন জিম্বাবুয়েন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। জিম্বাবুয়ের ঘরোয়া লিগে ৭১ বলে অপরাজিত ১৬২ রান করেছিলেন এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান। গতকাল লাইথ মাত্র ১ রানের জন্য মাসাকাদজার রেকর্ড ভাঙ্গতে পারেন নি।

Also Read - রাজশাহীর হয়েই খেলবেন স্যামি!

ম্যাচের শুরু থেকেই নর্থামশায়ারের বোলারদের বিপক্ষে চড়া হোন লাইথ। পাওয়ারপ্লে’তে দলের রান যখন বিনা উইকেটে ৮০ তখন লাইথের একাই অবদান ছিল ৬৩। যা তিনি করেছিলেন মাত্র ২৮ বলে। এদিকে ম্যাচের ১৪তম ওভারে ক্যারিয়ারের প্রথম শতকের দেখা পান এই ক্রিকেটার। যদিও এরপর দুইটি জীবন পেয়েছিলেন লাইথ। ১০৬ রানে ক্যাচ দিয়ে বেঁচে যান এবং ১১৬ রানে রান আউটের হাত থেকে বেঁচে যান এই বামহাতি ব্যাটসম্যান।

লাইথের এই ১৬১ রানের ইনিংসটি কাউন্টির ইতিহাসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের ইনিংস। অন্যদিকে লাইথের এই সেঞ্চুরীর সুবাদে তাঁর দল ইয়র্কশায়ার নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে তোলে ২৬০ রান। যা কাউন্টির ইতিহাসে যৌথভাবে তৃতীয় সর্বোচ্চ স্কোর। আজিম রফিকের ৫ উইকেটের সুবাদে ১২৪ রানের বড় জয় পায় লাইথের দল ইয়র্কশায়ার।

এদিকে দক্ষিণ গ্রুপে কেন্টের দুই ওপেনার জো ডেনলি ও ড্যানিয়েল বেল-ডামমন্ড ২০৭ রানের জুটি গড়ে বিশ্বরেকর্ড করেছেন। যে কোনো উইকেটে এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। অন্যদিকে তৃতীয়বারের মতো এই দুই ওপেনার টি-টোয়েন্টিতে ১৫০ রানের জুটি গড়লেন।

৬৬ বলে ১১ চার আর ৭ ছক্কায় ১২৭ রান করেছেন ডেনলি অন্যদিকে ৪৯ বলে ৭ চার আর ২ ছক্কায় ৮০ রান করেছেন ড্যানিয়েল বেল-ডামমন্ড। এই দুই ব্যাটসম্যানের কল্যানে নির্ধারিত ২০ ওভারে ২২১ রান করে কেন্ট।

২২২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৫ উইকেটে ২১০ রান তোলে এসেক্স। হারতে হয় ১১ রানে। এসেক্সের হয়ে সেঞ্চুরী পেয়েছেন ভরুন চোপড়া। ৫৯ বলে ৬ টি চার আর ৯ টি ছক্কায় ১১৬ রান করেন এই ক্রিকেটার।