তামিমের ইঞ্জুরি গুরুতর নয়

0

তামিমের ইঞ্জুরি গুরুতর নয়

গত জুনে অদ্ভুতুড়ে ইঞ্জুরির শিকার হয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের পেসার রুবেল হোসেন। ড্রেসিংরুমের দরজার আঘাতে বাম চোখ আর কানের মাঝখানের হাড় সরে গিয়েছিল তার। এবার রুবেলের মতো ‘অদ্ভুতুড়ে’ ইঞ্জুরির শিকার জাতীয় দলের ওপেনার তামিম ইকবাল। তবে তার চোট গুরুতর নয় বলে জানা গেছে।

রুবেল হোসেন মুখে আঘাত পেলেও এক্ষেত্রে তামিম ইকবাল আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন পেটে। জানা গেছে, চট্টগ্রামে অনুশীলন ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে রানআউট হওয়ার পর হতাশা থেকে ড্রেসিংরুমে্র দরজায় ব্যাট দিয়ে আঘাত করেন তিনি। আর এতেই ঘটে বিপত্তি।

Also Read - ওয়ালশের বিশেষ ক্লাসে পেসাররা

ড্রেসিংরুমের দরজায় থাকা কাঁচ ভেঙ্গে পড়ে তামিমের শরীরে, যার একটি অংশ দিয়ে পেট কেটে যায় দেশসেরা ওপেনারের। এতে ক্ষত সৃষ্টি হলে শেষ পর্যন্ত চারটি সেলাই নিতে হয় তামিমকে। তাই এখন বিশ্রামে আছেন তামিম। স্বাভাবিকভাবেই যোগ দেননি রবিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া অনুশীলন ক্যাম্পে। তবে এ নিয়ে চিন্তিত নন টাইগারদের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তাঁর বিশ্বাস কয়েকদিন বিশ্রামেই সেরে উঠবেন তামিম, ‘তামিমের ইনজুরি তেমন গুরুতর নয়। আশা করছি কয়েক দিনের মধ্যে সেরে উঠে সে অনুশীলন শুরু করতে পারবে।’

অস্ট্রেলিয়া সিরিজকে সামনে রেখে ১৬ ও ১৭ তারিখ নিজেদের মধ্যে ভাগ হয়ে আরো একটি প্রস্তুতি ম্যাচে ঢাকায় মাঠে নামবা বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। এ ম্যাচে তামিম ইকবাল খেলতে পারবেন বলে আশাবাদ প্রধান নির্বাচকের। এ প্রসঙ্গে নান্নু বলেন, ‘আজ বা আগামীকাল তামিমের সেলাই কাটা হবে। তারপরই তার অবস্থা বোঝা যাবে। তবে আমি নিশ্চিত, তার বড় ধরনের কোনও সমস্যা হয়নি। অনুশীলন শুরু করতে না পারলেও শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে তাকে পাওয়া যাবে।’

এর আগে আচমকা তামিমের ইঞ্জুরির খবরে অনেকের মনেই কৌতুহল জেগেছিল অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তামিম থাকতে পারবেন কিনা তা নিয়ে। তবে মিনহাজুল আবেদীন নান্নু এ নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন। জানালেন, ‘তামিমের ইনজুরি আমাদের জন্য অবশ্যই ভয়ের বিষয়। কারণ সে আমাদের দলের সেরা খেলোয়াড়। তবে অস্ট্রেলিয়া সিরিজে তাকে পাওয়ার ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।’