বিপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচ সিলেটে

0

বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে বিপিএলের নতুন এবং কার্যকর একটি সূচি প্রস্তুত করার পরই দেখা দিয়েছিল সংশয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিপিএল মাঠে গড়ানোর কথা ৩ নভেম্বর। আগের আসরগুলোর রীতি ধরে রেখে ভেন্যু হওয়ার কথা ছিল মিরপুর। কিন্তু বাঁধ সাধে অন্য একটি বিষয়।

নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঢাকায় বসবে কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের সেমিনার। ১ নভেম্বর শুরু হয়ে যেটি চলবে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত। ঐ সেমিনার উপলক্ষে ঢাকায় পা পড়বে চারশো থেকে পাঁচশো অতিথির। একই সময়ে ঢাকায় বিপিএল বিরাজ করলে তারকা ক্রিকেটারের সংখ্যাটাও নেহাত কম হবে না। এমন পরিস্থিতিতে সবাইকে রাজধানীতে ভালো মানের হোটেল সরবরাহ করা হয়ে দাঁড়াতে পারে কঠিন একটি ব্যাপার।

Also Read - বন্যার্তদের সহায়তায় বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বাতিল

এজন্য বিসিবি ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সামনে খোলা ছিল দুটি দরজা। এক- সপ্তাহখানেক পিছিয়ে যাবে সূচি, অথবা দুই- ঢাকার বাইরে হবে শুরুর দিককার খেলা। শেষপর্যন্ত দ্বিতীয় বাছাইটিই বেছে নিয়েছেন বিপিএল-কর্তারা। কেননা বিপিএল সূচি ফের পেছানোর পক্ষে নেই কেউই।

সেই মোতাবেক প্রথমবারের মতো বিপিএলের ভেন্যু হতে যাওয়া সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামই হতে চলেছে এবারের আসরের উদ্বোধনী ম্যাচের ভেন্যু। মঙ্গলবার দুপুরের পর রাজধানীর কল্যাণপুরের অ্যাকমি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয় বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের জরুরী এক সভা। ঐ সভাতেই বিপিএলের উদ্বোধনী ভেন্যু হিসেবে সিলেটের নাম প্রকাশ করা হয়।

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এবারের বিপিএলে তাই নতুন মাত্রা যোগ করতে চলেছে সিলেট। অতীতে বিভিন্ন ইভেন্টে ক্রীড়াপ্রেমের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সিলেটের মানুষ। নয়নাভিরাম সৌন্দর্য আর অত্যাধুনিক স্টেডিয়াম সিলেটকে বিপিএলের ভেন্যু হিসেবে বাছাই করে নিতে রীতিমতো বাধ্য করেছে বিসিবিকে। সেই সাথে সিলেটের প্রতিনিধিত্ব করে নতুন এক ফ্র্যাঞ্চাইজির মাঠে নামা এবারের আসরকে করে তুলবে একটু বেশিই রোমাঞ্চকর।

চা বাগানে ঘেরা সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম শহরের কোল ঘেঁষে অবস্থিত। ব্যাপক সংস্কারের পর স্টেডিয়ামটির ধারণক্ষমতা এখন প্রায় বিশ হাজার।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম