সবার সেরা হতে চান তামিম

0

ঢাকা টেস্টে তামিমের দুর্দান্ত পারফরমেন্স তাকে দিয়েছে আইসিসি টেস্ট র‍্যাংকিংয়ের ১৪তম স্থান। ১৪তম পজিশনটিই তামিমের ক্যারিয়ারের সেরা পজিশন। হালনাগাদকৃত র‍্যাংকিং প্রকাশের পর বৃহস্পতিবার জনপ্রিয় পোর্টাল বিডিনিউজ২৪ এর সাথে কথা বলেন তামিম। এ সময় তিনি জানান, একদিন র‍্যাংকিংয়ের ১ নম্বর খেলোয়াড় হতে চান তিনি।

'বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে পারাটা গর্বের'

ঢাকা টেস্টে তামিমের ইনিংস দুটি ছিল ৭১ ও ৭৮ রানের। আরও একটু এগোলে সেঞ্চুরি হতে পারতো দুটি ইনিংসই। অন্তত একটি সেঞ্চুরি না পাওয়ার আফসোস ঝরল তামিমের কণ্ঠে, ‘দুই ইনিংসের একটিতে সেঞ্চুরি করলেও হয়তো দশে ঢুকতে পারতাম। সেরা দশে থাকা অনেক বড় ব্যাপার। দেশের ক্রিকেটের জন্যও সেটি হতো অনেক বড় সম্মানের।’

Also Read - ইংল্যান্ডের বোলিং কোচের চাকরি প্রত্যাখ্যান করলেন গিলেস্পি

অবশ্য সেক্ষেত্রে প্রশ্ন আসতে পারে- আউট হওয়ার পেছনে তামিমের দায় কতটুকু? অজি পেসারদের অমন দুর্দান্ত ডেলিভারিতে তামিমের যে আসলেই কিছু করার ছিল না, জানালেন সেটাই। তামিম বলেন, ‘এমন দুটি ডেলিভারি, আমার কিছু করার ছিল না। বিশেষ করে দ্বিতীয় ইনিংসে। এই দুই ডেলিভারিতে যে কোনো সময় যে কোনো ব্যাটসম্যান আউট হতে পারত। এমনও হতে পারত যে আমার ১০ রানের মধ্যে এমন ডেলিভারি পেলাম, তাহলে তখনই আউট। ৭১ ও ৭৮ সেই তুলনায় খারাপ নয়।’

চলতি সিরিজের আগে তামিমের প্রস্তুতি দারুণ ছিল- জানালেন বাঁহাতি ওপেনার নিজেই, ‘কঠিন উইকেটে, কঠিন পরিস্থিতিতে ভালো খেললে নিজের খেলা এমনিতেই কয়েক ধাপ এগিয়ে যায়। নিজের সামর্থ্য নিয়ে আত্মবিশ্বাস বাড়ে। এই সিরিজের আগে আমার প্রস্তুতি দারুণ ছিল। গত আড়াই বছর ধরে টানা ভালো খেলার অভিজ্ঞতা সঙ্গে ছিল। এই টেস্টের অভিজ্ঞতাও আমাকে আরও সমৃদ্ধ করবে।’

সিরিজের প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়দের দ্বারা সবচেয়ে বেশি স্লেজিংয়ের শিকার হয়েছেন তামিম, ছেড়ে কথা বলেননি তিনিও। যদিও এতে গুনতে হয়েছে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা। এ বিষয়ে তামিম বলেন, ‘ব্যাটিং স্কিলের ব্যাপার তো বটেই, এই টেস্টে ধৈর্য-টেম্পারামেন্টের দিক থেকেও অনেক পরীক্ষা দিতে হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে প্রথমবার খেললাম, অনেক অভিজ্ঞতাই হয়েছে।’

পরিশেষে তামিম জানান একদিন বিশ্বসেরার জায়গায় তার নাম দেখার ইচ্ছের কথা, ‘সেরা দশে ঢুকতে চাই তো বটেই, আমি আরও অনেক বড় স্বপ্ন দেখি। এক নম্বর কেন নয়? আমরা খেলি তো সেরা হওয়ার জন্যই!’

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম