সাকিবের রফিক-রাজ্জাক স্মরণ

0

বুধবার সাকিবের অলরাউন্ড পারফরমেন্সে সফরকারী অস্ট্রেলিয়াকে ২০ রানে হারিয়ে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। সাকিবের কৃতিত্ব ছাড়াও এই ম্যাচে বাংলাদেশের মূল শক্তি ছিল গোটা স্পিন আক্রমণ।

সাকিব আল হাসান

টেস্ট শুরুর আগে স্পিন না পেসে গুরুত্ব দিবে দল- এ নিয়ে চলেছে বিস্তর বিতর্ক। তবে শেষমেশ টিম ম্যানেজমেন্ট আস্থা রেখেছে স্পিনেই। সাকিবের নেতৃত্বে স্পিন আক্রমণভাগের দায়িত্বে ছিলেন তাইজুল ইসলাম মেহেদী হাসান মিরাজ, আর তাদের কাঁধে চড়ে ম্যাচে বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণের নেতৃত্বে ছিল পুরো স্পিন বিভাগ।

Also Read - অস্ট্রেলিয়ার থেকে আরেকটু বেশি সম্মান আশা করছেন সাকিব

স্পিনের উপর নির্বাচকরা আস্থা রেখে যে ভুল করেননি, সাকিব-তাইজুল-মিরাজরা সেটি প্রমাণ করেছেন পারফরমেন্স দিয়েই। ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার ২০ উইকেটের ১৯টিই যে শিকার করেছেন স্পিনাররা! বাকী একটি উইকেট রানআউট না হলে সেটিও হয়ত যুক্ত হত কোনো স্পিনারের পরিসংখ্যানেই।

অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশ্বসেরা দলের বিপক্ষে স্পিন দিয়ে এমন দাপট দেখানো যে চাট্টিখানি কথা নয়, সেটি মানছেন ঢাকা টেস্ট জয়ের নায়ক সাকিবও। তবে বর্তমান স্পিন কম্বিনেশনকেই নিজেদের সেরা বলতে তার রয়েছে কিছুটা সংশয়।

ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সাকিব বলেন, এভাবে বলা ঠিক হবে না আগের সিচুয়েশন ছিল একরকম, এখনকার সিচুয়েশন আরেকরকম আগে খেলতাম পাঁচদিন খেলার জন্য এখন খেলি জয়ের জন্য তাই এখনকার উইকেট তৈরি করা হয় অন্য হিসাবে।

বর্তমান স্পিন কম্বিনেশন সেরা কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব স্মরণ করেন সাবেক বনে যাওয়া তারকা স্পিনার মোহাম্মদ রফিক ও এখনও দাপটের সাথে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলে যাওয়া আব্দুর রাজ্জাকের কথা, রফিক ভাই তো বাঁহাতি বোলার হিসাবে অনেক বড় মাপের বোলার ছিলেন রাজ্জাক ভাইও সেরা বোলার আমি এভাবে বলতে চাই না যে আমাদের বর্তমান স্পিন কম্বিনেশনই সেরা।

বাংলাদেশের কোন স্পিন কম্বিনেশন সেরা ছিল এ নিয়ে স্বাভাবিকভাবেই থাকতে পারে বিতর্ক। তবে সেই বিতর্ক যে ‘মধুর সমস্যা’ ছাড়া আর কিছু নয়, সেটিই সবচেয়ে স্বস্তির বিষয়!

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম