আট বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলবে টাইগাররা

0

শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দু’ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ২০ রানের জয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে স্বাগতিকরা। যারফলে, আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে থেকে সিরিজ জয়ের একমাত্র লক্ষ্য নিয়ে সোমবার থেকে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে সফরকারীদের বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে মুশফিকবাহিনী।

চট্টগ্রাম টেস্টে ফিরছেন মুমিনুল!

প্রথম টেস্টের জয়ে বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তির দেখা মিললেও, দ্বিতীয় টেস্টের একাদশে দেখা মিলতে যাচ্ছে পরিবর্তনের। টানা দুই টেস্ট ম্যাচ পর একাদশে আবারো ফিরছেন মুমিনুল হক! অন্তত, দলীয় সূত্রে আভাস মিলছে এমন কিছুরই।

Also Read - ধোনির কাছ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছেন তামিম

ঢাকা টেস্টে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বোলাররা বিশেষ করে স্পিনাররা ছিল দূর্দান্ত। মূলত ঘূর্ণি জাদুতেই মিরপুরের স্পিন সহায়ক উইকেটে প্রথমবারের মতো অজি বধ করতে সক্ষম হয়েছিল বাংলাদেশ। তবে ব্যাটসম্যানরা সবাই দ্যুতি ছড়াতে পারেননি। কয়েকজন বাদে বাজে শট খেলে অনেকেই বিলিয়ে দিয়ে এসেছিলেন উইকেট।

আর এর ফলে দ্বিতীয় ও সিরিজ নির্ধারণী শেষ টেস্টের একাদশে পরিবর্তন এনে শক্তিমত্তা বৃদ্ধির পথে হাঁটছে চান্ডিকা হাথুরুসিংহে। এটা প্রায় অনুমেয় যে, ঢাকা টেস্টের মতো চট্টগ্রামের উইকেটও থাকবে বোলারদের অনুকূলে। তাই একাদশে ব্যাটসম্যানদের দিকেই প্রাধান্য দিচ্ছে স্বাগতিকরা। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথমবারের মতো সিরিজ জয়ের আশায় মোট আটজন ব্যাটসম্যান নিয়ে চট্টগ্রাম টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ।

ব্যাটসম্যানদের প্রাধান্য দেওয়ার ফলে এক পেসার নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ সাথে রাখা হবে তিন বিশেষজ্ঞ স্পিনার।

মুমিনুলের অন্তর্ভুক্তি হলেও এবার তিনি নয় বরং চার নম্বর পজিশনে ব্যাট করবেন তিনি বলে জানা গেছে। সেক্ষেত্রে তিনে ব্যাট করবেন প্রথম টেস্টে নিজের নামের প্রতি সুবিচার না করতে পারা ইমরুল কায়েস। আর ইনিংসের গোড়াপত্তনের দায়িত্ব থাকবে যথারীতি তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকারের কাঁধে। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে সাব্বির রহমান চারে ব্যাট করলেও এবার তাকে দেখা যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে সাতে।

তাঁর আগে সাকিব আল হাসান মুশফিকুর রহিম ব্যাট করবেন যথাক্রমে পাঁচ ও ছয় নম্বর পজিশনে।

দু’দলের সম্ভাব্য একাদশ-

বাংলাদেশঃ তামিম ইকবাল,  সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), নাসির হোসেন, মেহেদি হাসান, তাইজুল ইসলাম,   মুস্তাফিজুর রহমান।

অস্ট্রেলিয়াঃ ডেভিড ওয়ার্নার, ম্যাট রেনশো, স্টিভেন স্মিথ (অধিনায়ক), পিটার হ্যান্ডসকম, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, হিল্টন কার্টরাইট, ম্যাথিউ ওয়েড, এশটন আগর, স্টিভ ও’কিফ, প্যাট কামিন্স, নাথান লায়ন।