SCORE

Trending Now

আশরাফুলের কণ্ঠে প্রোটিয়া-বধের সূত্র

Share Button

আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যকার টেস্ট সিরিজ। দেড় মাস ব্যাপী এই সিরিজকে কেন্দ্র করে দুই দেশের ক্রিকেট অঙ্গনে কাজ করছে ভিন্ন আমেজ।

ফিক্সিংয়ের কারণে ক্যারিয়ারে বাধা পড়ায় জাতীয় দলে খেলা হচ্ছে না দেশের ক্রিকেটের অন্যতম বড় তারকা মোহাম্মদ আশরাফুলের। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের রোমাঞ্চ ছুঁয়ে যাচ্ছে তাকেও।

Also Read - 'প্র্যাকটিস ম্যাচ থেকে অনেক আত্মবিশ্বাস পেয়েছি'

সম্প্রতি অনলাইন পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আশরাফুল জানান টেস্টে প্রোটিয়াদের হারানোর উপায়- দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২৫০ রানের মধ্যে অলআউট করতে হবে। সেখানে বোলাররা জ্বলে উঠতে না পারলে ম্যাচে টিকে থাকা কঠিন, বিশেষ করে টেস্টে। তাই আমাদের বোলারদের বাড়তি দায়িত্ব নিয়ে বোলিং করতে হবে। নিউজিল্যান্ড সফরে বোলাররা তেমন ভালো করেনি। ওখানে একটা টেস্টে প্রথম ইনিংসে ৫৯৫ রান করেও আমরা হেরেছিলাম বোলারদের বাজে পারফরম্যান্সের কারণে। তাই দক্ষিণ আফ্রিকায় বোলারদের ভালো করা খুব জরুরি। ব্যাটসম্যানদের চেয়ে বোলারদের দায়িত্ব কোনও অংশে কম নয়।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে রয়েছে পেসারদের ভালো করার সুযোগ। তবে পেসারদের মধ্যে অভিজ্ঞ বলতে আছেন শুধু রুবেল হোসেন, অন্যরা খেলেননি এতো বেশি টেস্ট ম্যাচ। তবে এতে কোনো সমস্যা দেখছেন না আশরাফুল, অভিজ্ঞতা বড় কথা নয়, আসল কথা হলো মাঠে নেমে পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়ন। দলে রুবেল-মোস্তাফিজ-শফিউলের মতো প্রতিভাবান পেসার আছে। এমনকি শুভাশীষও শ্রীলঙ্কা সফরে ভালো খেলেছিল।

তিন সিরিজেরই বিচারে আশরাফুল ভরসা রাখছেন অভিজ্ঞদের উপরই। তিনি বলেন, মাশরাফি, সাকিব, তামিম, মুশফিক আর ইমরুলের সেখানে খেলার অভিজ্ঞতা আছে। এটা আমাদের উপকারে আসবে। প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশ খারাপ খেলেনি। অভিজ্ঞদের পাশাপাশি তরুণদের পারফরম্যান্স টাইগারদের ভালো করতে সাহায্য করবে।

দক্ষিণ আফ্রিকায় সফরকারী দলগুলো একটু বেকায়দায় পড়লেও বাংলাদেশ সাম্প্রতিক ভালো ক্রিকেটের ধারাভিকতা ধরে রাখলে সফল হওয়া সম্ভব বলে মনে করছেন টেস্টের এই সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান। আশরাফুলের ভাষায়,শুধু বাংলাদেশ নয়, দক্ষিণ আফ্রিকায় সব দলকেই কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মতো দলও সমস্যায় পড়ে সেখানে। তবে আমরা প্রায় আড়াই বছর ধরে ভালো ক্রিকেট খেলছি। দুজন ব্যাটসম্যানও বড় ইনিংস খেলতে পারলে স্কোরবোর্ডে যথেষ্ট রান উঠবে।

টেস্ট সিরিজ থেকে বিশ্রামে থাকায় দলে নেই সাকিব। এতে অনেকে ভাবছেন লিটনকে কিপিংয়ে রেখে অধিনায়ক মুশফিককে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলানোর কথা। তবে আশরাফুলের মতে, কিপিং করা উচিত মুশফিকেরই, সাকিব না থাকায় বাড়তি একজন ব্যাটসম্যান বা বোলার খেলাতে হবে। ব্যাটিং অর্ডারে মুশফিককে ওপরে রেখে লিটনকে দিয়ে কিপিং করানোর চিন্তা-ভাবনা করছে টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে আমার মনে হয়, সাকিব নেই বলে মুশফিকের কিপিং করা উচিত। দল হতে পারে এরকম- সাত জন ব্যাটসম্যান,  তিনজন পেসার ও একজন অফস্পিনার।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

Related Articles

‘হাথুরুসিংহেকে ক্ষমতা দেওয়াই বুমেরাং হচ্ছে’

এমন পারফরম্যান্সেরর কারণ খুজঁছেন হাবিবুল

“২০০ রান তাড়ার মানসিকতা তৈরি হয়নি”

টি-২০ তে দ্রুততম শতকের মালিক হলেন মিলার

এবারও হোয়াইটওয়াশে চোখ প্রোটিয়াদের