বদলে যাওয়া তামিমের গল্প

Share Button

 

শুধুমাত্র বাংলাদেশের সেরা নয়, বিশ্বের সেরাদের কাতারে থাকার ইচ্ছা বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবালের। ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজের লক্ষ্যের পরিধির এমন বিস্তৃতির কথা জানান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে  বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তামিম।

Also Read - 'মনে হচ্ছে সিনেমার জগতে বসবাস করছি!'

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট ছিল তামিম ইকবালের ক্যারিয়ারের ৫০ তম টেস্ট। প্রথম ইনিংসে দলের বিপর্যয়ে খেলেছিলেন ৭১ রানের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসেও অসাধারণ খেলেন তিনি। করেন ৭৮ রান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে জয়ে তামিমের যে বড় অবদান ছিল তাতে কোনো সন্দেহ নেই।

তামিম ইকবাল বলেন, “ইনিংসটাকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মনে হচ্ছে। উইকেট একটু অন্যরকম আচরণ করছিল। প্রথম ইনিংসে শুরুর দিকে কিছু দ্রুত উইকেট হারানোর পর আমি আমার সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করছিলাম”।

স্কোরবোর্ডে মাত্র ১০ রান তুলতেই তিন উইকেট হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর সাকিব আল হাসানকে নিয়ে হাল ধরেছিলেন তামিম। দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যাট হাতে তামিম ছিলেন উজ্জ্বল। তামিম বলেন, “তখন আমি ও সাকিব একটা জুটি গড়লাম। দুই ইনিংসেই ঐ ৭০ রান খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমি একটা শতক করতে চেয়েছিলাম। অন্তত ঐ দুইটির একটিকে শতকে পরিণত করতে চেয়েছিলাম।”

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম টেস্টে জয় নিয়ে তিনি বলেন, “আমার ক্যারিয়ারের গুরুত্বপূর্ণ জয়গুলোর একটি। আমি বলবো না সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু নিশ্চয়ই অনেক উপরের দিকে থাকবে। অস্ট্রেলিয়াকে হারানো সহজ কথা নয়। আমরা যেভাবে খেলেছি তাতে গর্ব করতেই পারি।”

২০১৫ সালের বিশ্বকাপের পর থেকে দারুণ ফর্মে আছেন তামিম ইকবাল। প্রায়ই খেলছেন বড় ইনিংস। আগের চেয়ে হয়েছেন অনেক ধারাবাহিক। নিজের এমন উন্নতি নিয়ে তামিম বলেন, “গত বছর দুয়েক ধরেই আমি বেশ ভালো রান পাচ্ছি। সবচেয়ে বড় পরিবর্তনটা হয়েছে মানসিকতায়। আমি এখন আরো বেশি ফোকাসড এবং অনুশীলনে কি করছি সে সম্পর্কে অবগত। অনুশীলনটাই হচ্ছে মূল চাবিকাঠি।”

বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান হওয়ার আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করেন তামিম। তবে প্রথমে চান র‍্যাঙ্কিংয়ের সেরা ১০ এ প্রবেশ করতে। তামিম বলেন, “আমার লক্ষ্য হলো বিশ্বের সেরা ব্যাটসম্যান হওয়া। প্রথম লক্ষ্য থাকবে প্রথম দশে ঢুকতে পারে। এ লক্ষ্য আমি এখনো অর্জন করতে পারিনি। যদি পারি তাহলে সেখান থেকে নিজেকে উপরে নিয়ে যাবো।”