SCORE

Breaking News

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বিশ্রামে ‘ক্লান্ত’ সাকিব

Share Button

টানা ক্রিকেট খেলার ক্লান্তিটা যেন পেয়ে বসেছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান এর উপর। নিজ থেকেই বোর্ডের কাছে চেয়েছিলেন ছুটি। দক্ষিণ আফ্রিকা দলের বিপক্ষে টেস্ট সফরে দেখা যাবে না বাংলাদেশের পোস্টার বয় সাকিবকে।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সাকিবের নতুন কীর্তি

বিভিন্ন সূত্র মতে ঢাকা টেস্টের পরই বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপনকে নিজের ইচ্ছার কথা জানান সাকিব। সেটা নিয়ে পাপন বোর্ড পরিচালকদের সাথে দফায় দফায় আলোচনা করেছেন। টানা ক্রিকেট খেলতে খেলতে ক্লান্ত সাকিব অবশ্য খেলবেন ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি। বিরতি পেলে নিজেকে মেলে ধরতে সুবিধা হবে এমনটাই চিন্তা সাকিবের। নিজের সবটুকু আবার ঢেলে দিবেন দেশের জন্য।

Also Read - শান্ত'র টানা শতকে এইচপির দাপুটে জয়

বর্তমান সূচি অনুযায়ী সাকিবের ছয় মাসের ছুটির মধ্যে বাংলাদেশ দলের খেলার কথা মোট চারটি টেস্ট। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে খেলবে দুটি টেস্ট। আর ডিসেম্বরে শ্রীলংকা দলের বাংলাদেশ সফরে রয়েছে দুটি টেস্ট। এছাড়া আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বাংলাদেশ দলের যাওয়ার কথা থাকলেও সেটা জুলাইয়ে পিছিয়ে যাওয়া একরকম নিশ্চিত। তবে সাকিব আল হাসান কেবল ছুটি পাবেন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরেই। ঘরের মাঠে ডিসেম্বরে ফিরবেন সাদা পোশাকে এমনটাই সিদ্ধান্ত হয়েছে।

সাকিবের অভিষেকের পর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে এর আগে আর একবারই গিয়েছে বাংলাদেশ। ২০০৮ সালে সে সফর থেকে বেশ কিছু ব্যক্তিগত অর্জন নিয়ে ফিরেছিলেন সাকিব। দুই টেস্টে পরপর দুই ইনিংসে নিয়েছিলেন ৫ ও ৬ উইকেট। শেন ওয়ার্ন ও অনিল কুম্বলের মতো স্পিনারেরও দক্ষিণ আফ্রিকায় টানা দুই ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার এই কীর্তি নেই। মুত্তিয়া মুরালিধরনের আছে মাত্র একবার। এর আগে ২০০২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যায় বাংলাদেশ যে সিরিজের দুটি টেস্টই ইনিংস ব্যবধানে হেরে ধবলধোলাই হয়ে দেশে ফেরে টাইগাররা।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফর এমনিতেই বেশ কঠিন হওয়ার কথা বাংলাদেশ দলের জন্য। বিদেশের মাটিতে টেস্ট সিরিজে খুব বেশি সুখের স্মৃতি নেই টাইগারদের। বড় দলগুলোর বিপক্ষে সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ভালো খেলছে। দেশের মাটিতে বলেকয়েই ভালো পারফরম্যান্স করছে যেটা এখন টেনে নিয়ে যেতে হবে দেশের বাইরেও। সাকিব আল হাসান না থাকাতে বিষয়টা একটু কঠিনই হয়ে গেল বাংলাদেশ দলের জন্য।

বাংলাদেশে দলে একই সাথে সাকিব আল হাসান দুইজনের কাজ করেন। ব্যাট হাতে ব্যাটিং আর মহাগুরুত্বপূর্ণ বোলিং। ৫০ টেস্ট শেষেই একটা নাড়া পড়ে গিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বে। আশির দশকের বিখ্যাত চার অলরাউন্ডার ইমরান-বোথাম-হ্যাডলি-কপিল কিংবা এর আগে-পরের ক্ষণজন্মা দুই অলরাউন্ডার সোবার্স বা ক্যালিস, সাকিবের মতো আর কারোরই যে ৫০ টেস্ট শেষে তিন হাজার রান ও দেড় শ উইকেট ছিল না।

সাকিব আল হাসান এর ক্লান্ত হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক। বছরজুড়ে জাতীয় দলের পাশাপাশি বিভিন্ন টি-টয়েন্টি লিগ গুলোর জন্য চাহিদা থাকে সাকিবের। খেলার জন্য সবচেয়ে বেশি ঘুরে বেড়ানো বাংলাদেশি ক্রিকেটারও খুব সম্ভবত সাকিব আল হাসান। বিভিন্ন লিগে হোম এন্ড এওয়ে ভিত্তিতে খেলার ভ্রমণক্লান্তি ত সাকিবের সঙ্গীই।

সাকিবের অর্ধশতক উদযাপন

বাংলাদেশের হয়ে এ পর্যন্ত ৫১ টেস্ট , ১৭৭ ওয়ানডে আর ৫৯টি বিশ ওভারের ম্যাচ খেলেছেন। ৫১ টেস্টে ৪০ গড়ে করেছেন প্রায় ৩৬০০ রান। বল হাতে ১৮৮ উইকেট। ওয়ানডেতে প্রায় ৩৫ গড়ে সাকিবের সংগ্রহ ৫০০০ থেকে ১৭ রান কম। আর উইকেট পকেটে পুরেছেন ২২৪ টি। টি-টোয়েন্টিতে তেমন সুবিধা কখনই করতে পারে নি বাংলাদেশ। সবচেয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেটে ১২০০ এর উপর রান আর ৭০ উইকেট আছে সাকিবের দখলে।

এছাড়া ঘাড়ে পড়েছে প্রায় ১৭৮টি ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। ব্যাটে বলে সমান তালে লড়েন বলে সব দলেরই একটু বেশিই চাওয়া থাকে সাকিবের প্রতি। টি-টোয়েন্টির রমরমা যুগে টেস্ট থেকে সরে গেছেন অনেকেই। তবে সাকিব আল হাসান এর ভাবনাটা অন্যরকম বলেই খবর বিভিন্ন সূত্রের। বিশ্রাম নিয়ে চটপটে হয়ে ফেরাটাই সাকিবের মূল লক্ষ্য।

বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার এর জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট অভিষেক ২০০৭ সালে। তার অভিষেকের পর বাংলাদেশ টেস্ট খেলেছে ৬০ থেকে দুটি কম যার সাতটিতে ছিলেন না মাগুরার এই ছেলে। একদম শুরুর দিকে দুই সিরিজের তিন টেস্টে ছিলেন না তিনি। ২০০৮ সালে সর্বশেষ বাদ পড়েছিলেন। এরপর দলের এক মৌলিক চাহিদা হয়ে গিয়েছিলেন সাকিব। ২০১৩ সালে পায়ের চোটের কারণে যেতে পারেন নি লংকা সফরে। আর পরের বছর ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞার কারণে যেতে পারেন নি উইন্ডিজিদের ডেরায়।

নয় বছর পর বাংলাদেশের দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শুরুই হবে টেস্ট সিরিজ দিয়ে। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে প্রথম টেস্ট, দ্বিতীয় টেস্ট শুরু ৬ অক্টোবর। ৩টি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হবে এরপর।

  • রাইয়ান কবির , প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

Related Articles

মিডিয়াকে এক হাত নিলেন পাপন

সিলেট স্টেডিয়াম নিয়ে উচ্চপর্যায়ে দূরদর্শী পরিকল্পনা

বিপিএলের উদ্বোধন করলেন বিসিবি সভাপতি

হাথুরুর ছুটি ও বিসিবি প্রধানের পাঁচের স্বপ্ন

বাংলাদেশকে পাঁচে দেখতে চান পাপন