নিষেধাজ্ঞার কবলে স্টোকস ও হেলস

0

অনাকাঙ্ক্ষিত নীতিবিরুদ্ধ ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ইংলিশ ক্রিকেটার বেন স্টোকস ও অ্যালেক্স হেলসকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ড ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইসিবি এই সিদ্ধান্ত প্রদান করে। ব্রিস্টলের রাস্তায় রাত-বিরাতে মারপিট করে গত দুই দিন ধরে আলোচনায় ছিলেন এই দুই ক্রিকেটার। [দেখুনঃ যে কারণে নিষিদ্ধ করা হলো এই দুই ক্রিকেটারকে]

নিষেধাজ্ঞার কবলে স্টোকস ও হেলস

স্টোকসের বিরুদ্ধে মারপিটের অভিযোগ এলেও তার প্রতি সহানুভূতিশীলই ছিল ইসিবি, একইসাথে সতীর্থ ও নিজ দেশের সাবেক খেলোয়াড়েরা। তবে স্টোকসকে আটক করার পর জনপ্রিয় দৈনিক ডেইলি সানে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যেখানে সংযুক্ত করা ভিডিওগ্রাফে দেখা যায় স্টোকসের মারপিটের দৃশ্য। ঐ সময় স্টোকসের সাথে ছিলেন অ্যালেক্স হেলসও। এই ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরপরই তাদের অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ইসিবি।

Also Read - ফিল্ডিং নেওয়ায় সমস্যা দেখছেন না সাব্বির

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বুধবারের ম্যাচের আগে স্টোকসকে আটক করে ব্রিস্টল পুলিশ। এ সময় পুলিশের হেফাজতে নিয়ে যাওয়া হয় হেলসকেও। যদিও তখন জানানো হয়, পুলিশি কাজে সহায়তা করার জন্যই হেলসকে নেওয়া হয়েছে। দুই ক্রিকেটারই মিস করেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ।

ডেইলি সানে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, দুই জন লোককে সজোরে ঘুষি হাঁকিয়েছেন স্টোকস। এ সময় অন্য কেউ বলে উঠেন, ‘যথেষ্ট হয়েছে, স্টোকস।’

সামনেই ইংল্যান্ডের অ্যাশেজ সিরিজ। গুরুত্বপূর্ণ এই সিরিজের জন্য দলের প্রধান অস্ত্র হিসেবে বিবেচিত হচ্ছিলেন স্টোকস ও হেলস, এমনকি তাদের রাখা হয়েছিল সদ্য ঘোষিত অ্যাশেজের দলেও। তবে ঝামেলায় জড়িয়ে এই দুজন ইংল্যান্ড জাতীয় দলে নিজেদের ভবিষ্যৎকে করে তুললেন প্রশ্নবিদ্ধ।

ঝামেলা চুকে না যাওয়া পর্যন্ত স্টোকস ও হেলস যে আর ইংল্যান্ড দলে ফিরছেন না তা স্পষ্ট ইসিবির বিবৃতিতেই। বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংস্থাটি সাফ জানিয়ে দেয়, পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত ইংল্যান্ড দলে বিবেচনা করা হবে না এই দুজনকে।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম