পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে সম্মতি আইসিসির

0

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের উপর সন্ত্রাসী-জঙ্গি হামলার পর দীর্ঘ সময় ধরে কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়নি পাকিস্তানে। নিজেদের দেশে ক্রিকেট ফেরাতে চেষ্টার কমতি রাখেনি পিসিবিও। দীর্ঘ ৬ বছর পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ আয়োজন করে পিসিবি।

ক্রিকেট ফেরানোর সিরিজে পিসিবির খরচ আড়াইশ কোটি!
ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ টি-২০ সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে উল্লসিত পাকিস্তানের সমর্থকরা। এই সিরিজ মাঠে গড়াতে বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ করতে হয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ডকে।

পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরাতে আমন্ত্রণ জানায় বাংলাদেশ দলকেও কিন্তু নিরাপত্তা জনিত সমস্যার কারণে আগ্রহ দেখায়নি বিসিবি। তবে ২০১৭ পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) এর ফাইনাল লাহোরে আয়োজন করে পিসিবি। ফাইনালকে ঘিরে পিসিবির নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তুষ্টি প্রকাশ করে ক্রিকেটাররা।

পিএসএল ফাইনাল আয়োজনের পর পাকিস্তানের দর্শকদের মাঝে ক্রিকেটের উন্মেদনা ফেরানোর জন্য লাহোরে আইসিসির বিশ্ব একাদশের সঙ্গে তিনটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ আয়োজন করে পিসিবি। প্রথম দুই ম্যাচকে ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় সন্তুষ্ট হয়েছে আইসিসি।

Also Read - সিনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে মনমালিন্য হাথুরুসিংহের!

তাই পিসিবির সাথে পাকিস্তানে আবারো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে সম্মতি জানিয়েছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থাটি। আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেবিড রিচার্ডসন বলেন, পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা দেওয়া হবে আইসিসির পক্ষ থেকে।

তিনি বলেন, “পাকিস্তান বনাম বিশ্ব একাদশের ম্যাচ অবশ্যই স্বস্তির বিষয় তাঁদের জন্য। আইসিসি ইতিমধ্যে নিরাপত্তা এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করতে সব ধরনের সাহায্য করার কথা জানিয়েছে। আশা করছি অন্যান্য ক্রিকেট দলগুলোও পাকিস্তানে খেলতে যাবে।”