বন্যার্তদের মুখে হাসি ফোটাতে চান মুশফিক

0

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচে সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সিরিজের শেষ টেস্ট ম্যাচকে সামনে রেখে রবিবার ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসে সাংবাদিকদের সামনে নিজেদের লক্ষ্যের কথা তুলে ধরেন বাংলাদেশ দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

অস্ট্রেলিয়াকে 'ধবলধোলাই' করার লক্ষ্য মুশফিকের

সিরিজ নির্ধারণী টেস্ট ম্যাচ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার এক ফাঁকে ওঠে আসে বাংলাদেশের বন্যা পরিস্থিতি ও উত্তরাঞ্চলের বন্যা কবলিত এলাকার মানুষদের ভোগান্তি ও দুর্বিষহ জীবন-যাপনের কথা।

Also Read - অস্ট্রেলিয়াকে 'ধবলধোলাই' করার লক্ষ্য মুশফিকের

এমন সময় মুশফিকুর রহিম জানান চট্টগ্রামে শেষ টেস্টে জয় এনে বন্যা কবলিত এলাকার পানিবন্দী মানুষদ্র মুখে হাসি ফোটাতে চান তিনিসহ জাতীয় দলের প্রতিটি ক্রিকেটার। শুধু জয় উপহারেই থেমে থাকতে চান না তিনি বরং দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের লাখ লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করা মানুষদের সাহায্যেও এগিয়ে আসতে চান।

এরইমধ্যে, বন্যা কবলিত এলাকার মানুষদের সাহায্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের ক্রিকেটাররা এগিয়ে এসেছেে এবং খুব শীঘ্রই আরো বড় পরিসরে ত্রান সহযোগিতা দেওয়ার জন্য  ক্রিকেটাররা উদ্যোগ নিচ্ছে বলেও এসময় উল্লেখ করেন তিনি। বন্যা কবলিত মানুষদের সাহায্যের পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে তিনি জানান, ‘আমরা পরিকল্পনা করছি। এরই মধ্যে কিছু টাকা বন্যার্তদের সাহায্যে খরচ করেছি। সিরিজ শেষে আমরা আরও বড় উদ্যোগ নিয়ে ত্রাণ বিতরণ করব। বন্যার এই সময়ে মাঠে যদি আমরা ভালো পারফর্ম করতে পারি, তাহলে আশা করি তাদের মুখে একটু হলেও হাসি দেখতে পারবো। শেষ ম্যাচটিতে আমরা সেই চেষ্টাই করব। দোয়া করছি, যাতে দ্রুত সময়ে বন্যা দূর হয়ে যায় এবং তারা তাদের স্বাভাবিক জীবনে যাতে ফিরে আসতে পারে।’

উল্লেখ্য, বন্যাদুর্গতদের সাহায্যর্থে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিপিএলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা বাদ দিয়ে সিরাজগঞ্জে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে। তাছাড়া বন্যা কবলিত মানুষদের সাহায্যের জন্য প্রধানমন্ত্রীত ত্রাণ অহবিলে দুই কোটি টাকা অনুদান দিয়ে নতুন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।