বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজের সেরা তিন

0

বৃহস্পতিবার ইতি ঘটেছে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার জমজমাট দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের। প্রথম টেস্টের মতো সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টও পরিণতি দেখেছে ম্যাচের চতুর্থ দিনেই। অবশ্য ঢাকা টেস্টের জয়ী দল বাংলাদেশ চট্টগ্রাম টেস্টে থেকেছে পরাজিত দলের অবস্থানে। এতে ১-১ ব্যবধানে ড্র হয়েছে হাই ভোল্টেজ টেস্ট সিরিজ।

বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজের সেরা তিন

সিরিজ শেষে চলছে ব্যাটে-বলে কে বা কাড়া বেশি এগিয়ে ছিলেন, সেই হিসেবনিকেশ। পরিসংখ্যানের পাতা ঘেঁটে একনজরে দেখে নেওয়া যাক বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে সিরিজের সেরা তিনে আছেন কারা…

Also Read - সমতায় সিরিজ শেষ করল অস্ট্রেলিয়া

  • রান সংগ্রাহক-

১. ডেভিড ওয়ার্নারঃ দুই ম্যাচের চারটি ইনিংসেই খেলেছেন, মোট রান ২৫১। গড় ৬২.৭৫। হাঁকিয়েছেন দুটি সেঞ্চুরি। তিনি ছাড়া আর কেউই দেখা পাননি শতকের।

২. তামিম ইকবালঃ ওয়ার্নারের মতো তিনিও খেলেছেন সবগুলো ইনিংস, ওপেনিং ব্যাটসম্যানের জন্য ব্যাপারটি অতি স্বাভাবিকই। তবে রানের দিক থেকে ওয়ার্নারের চেয়ে আছেন বেশ পিছিয়ে। তবু বাঁহাতি ব্যাটসম্যান আছেন রান সংগ্রাহকদের দিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে। মোট রান ১৭০, গড় ৪২.৫০। ঢাকা টেস্টের দুই ইনিংসেই পেয়েছিলেন ফিফটির দেখা। অবশ্য ঘরের মাঠে চট্টগ্রাম টেস্টে ছিলেন নিষ্প্রভ।

৩. মুশফিকুর রহিমঃ দলের বিপর্যয় সামলাতে ব্যাট হাতে নামতে হয়েছে গোটা চারটি ইনিংসেই। বাংলাদেশ অধিনায়কের মোট রান ১৫৮, গড় ৩৯.৫০। একটি ফিফটি হাঁকিয়েছেন।

  • উইকেট শিকারি-

১. নাথান লায়নঃ ১৩৩.৫ ওভার বল করে শিকার করেছেন বাংলাদেশের ৪০ উইকেটের ২২টিই! ৩৪টি মেডেন ওভার ‘উপহার’ দিয়ে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ায় তার জুড়ি মেলা ভার। তিনটি ইনিংসেই নিয়েছেন পাঁচ বা তারও বেশি উইকেট।
২. সাকিব আল হাসানঃ বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার শিকার করেছেন ১২টি উইকেট। ৯০.৫ ওভার বল করে কোনো রান দেননি ১৮টি ওভারে। ঢাকা টেস্টের দুই ইনিংসেই পাঁচটি করে উইকেট শিকার করে ম্যাচ জিতিয়েছিলেন বাংলাদেশকে।

৩. মেহেদী হাসান মিরাজঃ ৮ উইকেট শিকার করে প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন তরুণ স্পিনার। ৮৩ ওভার বল করে ১৫টি মেডেন- যদিও কোনো ইনিংসে পাঁচ উইকেট পাওয়া হয়নি তার।

  • ব্যক্তিগত ইনিংস-

১. ডেভিড ওয়ার্নারঃ ২৩৪ বলের মোকাবেলায় ১২৩ রান। চট্টগ্রাম টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে তার করা এই ইনিংসের নিচেই চাপা পড়ে যায় বাংলাদেশ।

২. ডেভিড ওয়ার্নারঃ ঢাকা টেস্টে ১৩৫ বলে ১১২ রানের ইনিংস খেলে ব্যক্তিগত সেরা দ্বিতীয় ইনিংসটিও অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যান রেখেছেন নিজের দখলে। যদিও তার ঐ শতক ম্যাচ জেতাতে পারেনি সফরকারীদের।

৩. সাকিব আল হাসানঃ সিরিজ উদ্বোধনী ইনিংসে চাপের মুখে ১৩৩ বলে ৮৪ রান- পেন্ডুলামের মতো দোলায়মান ঢাকা টেস্ট বাংলাদেশের দিকে হেলিয়ে দিতে যে ইনিংসের ছিল কার্যকরী ভূমিকা।

  • বোলিং ফিগার-

এক্ষেত্রে শীর্ষ তিনে অজি স্পিনার নাথান লায়নের একক রাজত্ব! দেখে নিন এক নজরে-

১. ৩৬.২-৭-৯৪-৭

২. ৩৩-১১-৬০-৬

৩. ৩৪.৩-১০-৮২-৬

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম