বিপিএলে দল পাওয়ার খুশিতে ঘুম আসেনি মিশুর!

0

অনূর্ধ্ব-১৯ দল থেকে এবার বিপিএলে ডাক পেয়েছেন পাঁচ ক্রিকেটার, যাদের চারজনই জমজমাট আসরে খেলবেন প্রথমবারের মতো। তাদেরই একজন পেসার ইয়াসির আরাফাত মিশু।

বিপিএলে দল পাওয়ার খুশিতে ঘুম আসেনি মিশুর!

প্লেয়ার ড্রাফট থেকে নোয়াখালীর ছেলে মিশুকে দলে ভিড়িয়েছে তারই বিভাগের প্রতিনিধিত্বকারী দল চিটাগাং ভাইকিংস। দল পেয়ে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত তরুণ উদীয়মান এই ক্রিকেটার।

Also Read - কাজী অনিক- বয়সভিত্তিক থেকেই বিপিএলে!

দলে ডাক পাওয়ার খবরে মিশু এতো খুশি হয়েছিলেন যে রাতে তার ঘুম এসেছে দেরীতে! তিনি বলেন, রাতে ঘুম হয়েছে তবে দেরি হয়েছে কেননা অনেক খুশি ছিলাম কারণ প্রথমবারের মতো এমন বড় একটি টুর্নামেন্টে সুযোগ পেয়েছি

মিশু ভেবেছিলেন, অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় হিসেবে প্লেয়ার ড্রাফটে ডাক পাবেন না তিনি। তার ভাষ্যমতে, ভাবছিলাম যেভাবে প্লেয়ার নিচ্ছিলো তাতে অনূর্ধ্ব১৯ দলের প্লেয়ারদের ডাকবে না মনে হচ্ছিল কেউ নিতেও পারে আবার নাও নিতে পারে দোটানার মধ্যে ছিলাম তবে যখন আমাকে নিয়েছে তখন অনেক খুশি হয়েছি

বিপিএলের পর যুবাদের আছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের মিশন। বিপিএল থেকে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা সেখানে কাজে লাগাতে চান এই ডানহাতি ফাস্ট বোলার।

মিশু বলেন, অনূর্ধ্ব১৯ দলের প্লেয়ার হিসেবে এতবড় টুর্নামেন্ট আমার জন্য বিশ্বকাপে কাজে দেবে এমন একটা অভিজ্ঞতা যদি আমি বিশ্বকাপে নিয়ে যেতে পারি তাহলে ওখানে কাজটি আমার জন্য আরও সহজ হবে

তিনি আরও বলেন, যারা বিপিএল খেলছে তাদের জন্য এটা প্লাস পয়েন্ট হয়ে গেল যে বিশ্বকাপের আগে একটা ভালো ফ্লোতে থাকা কারণ বিশ্বকাপের আগে আমাদের কোনো সিরিজ নেই এশিয়া কাপের পরে আমরা সাধারণ অনুশীলন করবো তাই এটা একটা প্লাস পয়েন্টই

অনূর্ধ্ব-১৯ থেকে মিশু ছাড়াও বিপিএলে সুযোগ পেয়েছেন আরও চারজন। তবে অন্যরা নেই বলে কিছুটা আক্ষেপ তার কণ্ঠে। চট্টগ্রাম বিভাগের হয়ে এনসিএলে খেলা ক্রিকেটার বলেন, ভালো লাগছে এই ভেবে যে আমি একা না আমার সাথে অনূর্ধ্ব১৯ দলের আরও চারজন আছে যারা সবাই আমার বন্ধু তবে আরও বেশি সুযোগ পেলে আরও খুশি হতাম

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম