ব্রিস্টল-কান্ডে স্পন্সরও হারাচ্ছেন স্টোকস

0

‘এপারে বাদশা ছিলাম, ওপারে ফকির হলাম’… সাহিত্যের পাতায় এই লাইনটি বেশ মানাবে। তবে আপাতত তা মানানসই হয়ে দাঁড়িয়েছে ইংলিশ ক্রিকেটার বেন স্টোকসের ক্যারিয়ারে। মাত্র এক সপ্তাহ আগেও যিনি ছিলেন ইংল্যান্ড দলটির অন্যতম প্রধান অস্ত্র, অল্প কদিনের ব্যবধানেই তিনি হয়ে গেছে সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

ব্রিস্টল-কান্ডে স্পন্সরও হারাচ্ছেন স্টোকস

সম্প্রতি লন্ডনের ব্রিস্টলের রাস্তায় মধ্যরাতে মারপিট করে ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন স্টোকস। তার সাথে একই পরিণতি বরণ করে নিতে হয়েছে সতীর্থ অ্যালেক্স হেলসকেও। তবে মাঠের বাইরের ঝড় সামলাতে হেলসের চেয়ে বেশি হিমশিম খাচ্ছেন স্টোকসই। দল থেকে বাদ যাওয়ার পর এবার এই অলরাউন্ডার হারাচ্ছেন তার সব স্পন্সরও!

Also Read - ফিল্ডারের অভিনয়, শাস্তি অতিরিক্ত রান!

জানা গেছে, স্টোকসের ক্রিকেট সরঞ্জামের স্পন্সররা সাফ জানিয়ে দিয়েছে, স্টোকসের সাথে আর কোনো চুক্তিতে থাকছে না তারা। এতে আর্থিক দিক দিয়ে বড় ধরণের ক্ষতির মুখে পড়বেন ব্রিটিশ তারকা ক্রিকেটার। স্পন্সরদের কাছ থেকে বছরে প্রায় দুই লক্ষ পাউন্ড স্টোকস পেতেন ক্রিকেট সরঞ্জাম বাবদ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজ চলাকালেই মারপিট করে আটক হয়েছিলেন ইংলিশ ক্রিকেটার বেন স্টোকস। সেই সাথে কুড়িয়ে নিয়েছিলেন অফুরন্ত সমালোচনা। স্টোকসকে আটকের পাশাপাশি ঘটনাস্থলের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্রিস্টল পুলিশ সাথে নিয়ে গিয়েছিল স্টোকসের সতীর্থ অ্যালেক্স হেলসকেও।

অবশ্য স্টোকস ও হেলস দুজনই ছাড়া পান একদিন পর। শক্তপোক্ত অভিযোগের পরও তাদের পাশে ছিল ইসিবি। এমনকি রাখা হয়েছিল অ্যাশেজের জন্য ঘোষিত দলেও। তবে ইংলিশ দৈনিক ডেইলি সানের অনলাইন সংস্করণে স্টোকসের মারপিটের ভিডিও প্রকাশিত হলে বেরিয়ে আসে স্টোকসের কুকর্মের তথ্য।

এর পরপরই স্টোকস ও হেলসকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নিষিদ্ধ ঘোষণা করে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। দলে জায়গা হারানোর পাশাপাশি এই দুই ক্রিকেটার বিদ্ধ হচ্ছেন সমালোচনার তীরেও। তবে হেলসের চেয়ে বেশি হ্যাপা সামলাতে হচ্ছে স্টোকসকেই। খ্যাতি তো হারিয়েছেনই, এবার হারাচ্ছেন স্পন্সরও!

সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম