শর্ট বলকে চ্যালেঞ্জ মানছেন না মুমিনুল

Share Button

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পূর্ণাজ্ঞ সিরিজ খেলতে এখন সে দেশে টাইগার বাহিনী। ইতিমধ্যে গতকাল (২১ সেপ্টেম্বর) শুরু হয়েছে তিন দিনের অনুশীলন ম্যাচ। স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের বিপক্ষে মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম ও সাব্বির রহমানের অর্ধশতকে ভর করে ৭ উইকেটে ৩০৬ রান যোগ করার পর প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। দলের সর্বোচ্চ স্কোর করেন মুমিনুল হক। তাই প্রথম দিনের খেলা শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হোক এই ক্রিকেটার।

বেনোনিতে একমাত্র তিন দিনের ম্যাচের প্রথম দিনে টাইগার ব্যাটসম্যানরা শুভ সূচনা পেলেও কেউ ইনিংস বড় করতে পারেন নি। তিনটি অর্ধশত’র পাশাপাশি সৌম্য সরকার করেছিলেন ৪৩ রান। প্রথম দিনের খেলা শেষে ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্সে খুশি মুমিনুল। তিনি বলেন, “ওভারঅল আমাদের সব ব্যাটসম্যান এই কন্ডিশনে ভালো ব্যাটিং করেছে। অ্যাডজাস্ট করতে পারছে আল্লাহর রহমতে।” 

Also Read - কোহলি কুলদীপে সহজ জয় ভারতের

তবে খুশি হলেও মুমিনুল হকের কন্ঠে শতক না করার আফসোস ঝড়েছে। মুমিনুল বলেন, “আমি পুরাতন বলে খেলছি। নতুন বলটাই খেলতে পারলে সন্তুষ্ট হতে পারতাম।”

দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের আগে থেকেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু শর্ট বল। এই শর্ট বল কতোটা চ্যালেঞ্জ হবে টাইগারদের জন্য? তবে মুমিনুলের কাছে শর্ট বল বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছে না। তিনি বলেন, “আপনি যদি মনে করেন শর্ট বল চ্যালেঞ্জ হবে, তবে চ্যালেঞ্জ। মনে না করলে চ্যালেঞ্জ না। আর কন্ডিশনের ওপর সব নির্ভর করবে। আমার এমন কিছু মনে হয়নি।”

শুধু নিজে নন দলের অন্য ক্রিকেটাররাও শর্ট বল ভালো খেলার সামর্থ্য রাখেন বলে জানিয়েছেন এই বামহাতি ব্যাটসম্যান। তিনি বলেন, “আর আমার কাছে মনে হয়, আমার দলের সবাই এটা খেলার সামর্থ্য রাখে। অনেকেই সুন্দর শর্ট বল খেলতে পারে।”

প্রথম দিনে ৩০৬ রানে ইনিংস ঘোষণা করার পর ব্যাট করতে নেমে ২১ রানে একটি উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় দিনে টাইগারদের লক্ষ্য কি? এমন প্রশ্নে মুমিনুল জানিয়েছে, “দ্বিতীয় দিনের লক্ষ্য স্বাগতিকদের তাড়াতাড়ি অলআউট করে ব্যাটিং করব আমরা।”