সিরিজ নিশ্চিত করে শীর্ষে ভারত

0

তিন অর্ধশতকে ভর করে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে অস্ট্রেলিয়াকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। অস্ট্রেলিয়ার ছুঁড়ে দেওয়া ২৯৩ রানের লক্ষ্য ১৩ বল হাতে রেখেই টপকে গিয়েছে ভিরাট কোহলিরা। এ জয় দিয়ে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ৩-০ তে এগিয়ে গেল ভারত। দুই ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করলো তারা। পাশাপাশি এ জয়ের সুবাদে আইসিসি ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানেও চলে এসেছে ভারত।
সিরিজ নিশ্চিত করে শীর্ষে ভারত

ইনডোরে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। দুই ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ মিলে দারুণ সূচনা এনে দেন অস্ট্রেলিয়াকে। উদ্বোধনী জুটিতে ৭০ রান সংগ্রহ করে অজিরা। তাদের এ জুটি ভেঙ্গেছেন হার্দিক পান্ডিয়া। ৪২ রান করা ওয়ার্নারকে বোল্ড করেন তিনি।

অ্যারন ফিঞ্চ এবং অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ মিলে ১৫৪ রানের বিশাল জুটি গড়েন। এ জুটিতে ভর করে বড় স্কোড়ের দিকে এগিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া। দুজনই করছিলেন বেশ সাবলীল ব্যাটিং। ওপেনার ফিঞ্চ দারুণ খেলছিলেন। ৬১ বলে অর্ধশতক পূর্ণ করেন ফিঞ্চ। সেই অর্ধশতককে এগিয়ে নিয়ে যান। পরিণত করেন শতকে। তাকে দারুণ সঙ্গ দেন স্মিথ। অর্ধশতক হাঁকান তিনি। এ জুটি ভাঙেন গত ম্যাচে হ্যাটট্রিক করা কুলদীপ যাদব। এ চায়নাম্যানের বলে ১২৫ বলে ১২৪ রানের ইনিংস খেলে বিদায় নেন ফিঞ্চ। এরপর স্টিভ স্মিথকেও ফেরান কুলদীপ। ৫ চারে ৭১ বলে ৬৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

Also Read - আফগান ও টাইগার যুবাদের সূচিতে পরিবর্তন

বড় স্কোর গড়তে পারেননি গ্লেন ম্যাক্সওয়েল আর ট্রাভিস হেড। ম্যাক্সওয়েল ৫ রান ও হেড করেন ৪ রান। শেষদিকে ২৮ বলে ২৭ রান করেন মার্কুস স্টয়নিস। তিনশ’ রানের নিচে অস্ট্রেলিয়াকে আটকে রাখতে সক্ষম হয় ভারতীয় বোলাররা।

নির্ধারিত ৫০ ওভারের খেলা শেষে ৬ উইকেটে ২৯৩ রান করে থামে অস্ট্রেলিয়া। ভারতের হয়ে দুইটি করে উইকেট লাভ করেন জাসপ্রিত বুমরাহ এবং কুলদীপ যাদব। এছাড়া একটি করে উইকেট পান হার্দিক পান্ডিয়া ও যুযবেন্দ্র চাহাল।

২৯৪ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ সূচনা পায় ভারত। দুই ওপেনার আজিঙ্কা রাহানে ও রোহিত শর্মার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভারতের জয়ের পথ সহজ হতে থাকে। অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের ওপর আধিপত্য বিস্তার করেন এ দুই ওপেনার। শতরান ছাড়ানো এ জুটি ভাঙে রোহিত শর্মার বিদায়ে। ৭১ রান করে কোল্টার-নাইলের বলে বিদায় নেন রোহিত। মাত্র ৬২ বলে ৭১ রান করেন তিনি। হাঁকান ৬ টি চার ও ৪ টি ছক্কা।

এক ওভার পরে রোহিত শর্মার সঙ্গী আজিঙ্কা রাহানেও ফিরে যান সাজঘরে। প্যাট কামিন্সের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন রাহানে। আউট হওয়ার আগে করেন ৭০ রান। ৭৬ বলে ৭০ রানের ইনিংসটি রাহানে সাজান ৯ চারে।

হার্দিক পান্ডিয়াকে নিয়ে ৫৬ রানের কার্যকরী জুটি গড়েন অধিনায়ক ভিরাট কোহলি। থিতু হলেও বড় স্কোর গড়তে পারেননি কোহলি। ২ চারে ৩৫ বল মোকাবেলা করে ২৮ রানের ইনিংস খেলেন কোহলি। অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার অ্যাশটন অ্যাগারের শিকার হন তিনি। পরের ওভারে ফিরে যান কেদার যাদবও। মাত্র ২ রান করেন কেদার। ৪ বলে ২ রান করে রিচার্ডসনের বলে ফিরে যান তিনি। ভারতের তখন প্রয়োজন ৮৮ বলে ৮৮ রান।

দুই ওভারে দুই উইকেটের পতন ঘটলে চাপে পড়ে যায় স্বাগতিকরা। সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করেন হার্দিক পান্ডিয়া ও মনিশ পান্ডে। হার্দিক ও মনিশের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। তাদের ৬৩ বলে ৭৮ রানের জুটিতে ভারতের জয় অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। ৫ চার আর ৪ ছক্কার সাহায্যে ৭২ বলে ৭৮ রানের সময়োপযোগী ইনিংস খেলেন হার্দিক পান্ডিয়া। কামিন্সের বলে যখন ফিরে যান তখন ভারত জয় থেকে মাত্র ৮ রান দূরে। মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান মনিশ পান্ডে। ৬ চার সমৃদ্ধ ৩২ বলে ৩৬ রান করে অপরাজিত থাকেন মনিশ পান্ডে।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুইটি উইকেট পান প্যাট কামিন্স। একটি করে উইকেট শিকার করেন কোল্টার-নাইল, কেন রিচার্ডসন ও অ্যাশটন অ্যাগার।

এ জয় দিয়ে টানা নয়টি আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ার কীর্তি গড়লো ভারত। এর আগেও টানা নয় ওয়ানডে জেতার রেকর্ড রয়েছে ভারতের। চতুর্থ ওয়ানডেতে জয়লাভ করলে প্রথমবারের মতো টানা দশ ওয়ানডে জিতবে ভারত।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ অস্ট্রেলিয়া ২৯৩/৬, ৫০ ওভার
ফিঞ্চ ১২৪, স্মিথ ৬৩, ওয়ার্নার ৪২
বুমরাহ ২/৫২, কুলদীপ ২/৭৫, চাহা; ১/৫৪

ভারত ২৯৪/৫, ৪৭.৫ ওভার
হার্দিক ৭৮, রোহিত ৭১, রাহানে ৭০
কামিন্স ২/৫৪, অ্যাগার ২/৭১, রিচার্ডসন ১/৪৫

ম্যাচঃ ভারত পাঁচ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচসেরাঃ হার্দিক পান্ডিয়া
সিরিজঃ পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভারত ৩-০ তে এগিয়ে