হাথুরুসিংহকে পুরো কৃতিত্ব দিতে নারাজ মুশফিক

0

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাথে শ্রীলঙ্কান কোচ চন্দিকা হাথুরুসিংহে যোগ দেওয়ার পর থেকে ক্রিকেট বিশ্বে বাংলাদেশের উন্নতির গ্রাফ উর্ধ্বমুখি। তাঁর দিক-নির্দেশনা বাংলাদেশ ২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো কোয়াটার ফাইনালে, ২০১৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমি-ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে।

কোচের সাথে অনুশীলনের ফাঁকে মুশফিকের আলাপচারিতা

ভারত, পাকিস্তান, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ঘরের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জয় কিংবা ইংল্যান্ডকে এক সেশনের মধ্যে অল-আউট করে টেস্ট সিরিজ ড্র কিংবা শ্রীলঙ্কার মাটিতে তাদের বিপক্ষে টেস্ট জয় সবই হাথুরুসিংহের অধীনে বাংলাদেশের প্রাপ্তি।

Also Read - বন্যার্তদের মুখে হাসি ফোটাতে চান মুশফিক

আর সাফল্যের এই যাত্রায় নতুন সংযোজন সাদা পোশাকের লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাটিতে বাংলাদেশের ২০ রানের জয়। তবে কি হাথুরুসিংহের কাছে বিশেষ কোন জাদুর কাঠি আছে?

বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক এমনটা ভাবছেন না। কোচের কৌশলের প্রশংসা করলেও এত সব অর্জনের পুরো কৃতিত্ব কোচকে অর্থাৎ হাথুরুসিংহকে দিতে নারাজ মুশফিক! উল্টো, একটি ভারসাম্য দল পাওয়ার ফলেই বাংলাদেশ সাফল্য পাচ্ছে এবং কোচও সাফল্যে তুলে নিতে পারছেন বলে জানালেন মুশফিক।

দলের সাফল্য রচনার পেছনে অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের প্রশংসা করে মুশফিক জানান, ‘সত্য হলো, তার কৌশল অনেক ভালো। তবে এটাও মাথায় রাখতে হবে যে, আমি-সাকিব-তামিম-মাশরাফি-রিয়াদ ভাই কিন্তু ১০-১২ বছর ধরে খেলছি। পাঁচ ছয়জন যখন এভাবে খেলবে, তখন কিন্তু এটা দলের ভালো করার পথে থাকে। আমি মনে করি চন্ডিকা ভালো সময়ে, সেরা একটা দল পেয়েছে।’

তাছাড়া বাংলাদেশের সাফল্যে সাবেক কোচদেরও ভূমিকা আছে বলে বিশ্বাস করেন মুশফিকুর রহিম। সাবেক কোচদের প্রশংসার পাশাপাশি ওনাদের অবদানের কথা উল্লেখ করে মুশফিক বলেন, ‘ডেভ থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত যারা আছেন, তাদের অনেক কৃতিত্ব আছে। আমি মনে করি জেমি সিডন্সের ব্যাটিং কোচ হিসেবে অনেক বড় কৃতিত্ব আছে। চান্ডিকার সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো নতুনদের তিনি অনেক স্বাধীনতা দিয়েছেন। অনেক সময় দেখা যায় তরুণরা স্বাধীনভাবে খেলতে চায়, তারা চাপে পড়লে স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারে না। তিনি তরুণদের স্বাধীনতা দিয়েছন। আরেকটা বড় গুণ হলো, আমাদের সবাইকে সমান গুরুত্বসহকারে দেখেন। সবাইকে মনে করেন ম্যাচ উইনার। এরকম ছোট ছোট ব্যাপার প্রত্যেকটা দলকে শক্তিশালী করে।’

সেই সাথে দলে একাধিক পারফরমার ক্রিকেটার থাকার সুবাধেই বাংলাদেশ বগত কয়েক বছর যাবত সীমিত ওভারের ক্রিকেটের মতো টেস্টেও ভালো করছে ও ধারাবাহিকভাবে পারফর্ম করছে বলে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদেরঙ্গবহিত করেন মুশফিক।