SCORE

“আফগানিস্তানকে বিশ্বকাপ এনে দিতে চাই”

Share Button

বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের নতুন জাগরণ আফগানিস্তান। উন্নতির ধারা বজায় রেখে আফগানরা ইতোমধ্যে পেয়ে গেছে টেস্টের স্ট্যাটাস। এখনো ছোট দলের তকমা থাকলেও আফগান দলে আছে কিছু বড় তারকা। তাদের মধ্যে অন্যতম ১৯ বছর বয়সী লেগস্পিনার রশিদ খান। অল্প বয়সেই পেয়ে গেছেন বিশ্বসেরা ক্রিকেটারদের তকমা। খেলছেন দুনিয়ার সব নামকড়া ঘরোয়া লিগে। সাফল্যও পাচ্ছেন নজরকাড়া। তবে এই ডানহাতি স্পিনারের স্বপ্ন দেশকে বিশ্বকাপ জেতাবেন।

যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের ক্রিকেটে বিশ্বে আগমনের বেশিদিন হয়নি। ২০০৯ সালে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম একদিনের ম্যাচ খেলেছিল দলটি। এর ৮ বছরের মধ্যেই পেয়ে গেলো টেস্টের স্ট্যাটাস। দলের কিছু ক্রিকেটার ইতোমধ্যে ক্রিকেটবিশ্বে ভালো সুনাম অর্জন করেছেন। সেই তালিকায় রশিদ খানের পাশাপাশি আছেন মোহাম্মদ শেহজাদ, মোহাম্মদ নবীর মতো ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) এই তিন তারকাকে খেলতে দেখা গেছে।

Also Read - ওয়ানডে সিরিজের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোয়াড ঘোষণা

এখনো ছোট দলের তকমা লেগে থাকলেও আফগানিস্তানের উন্নতি চোখে পড়ার মতো। এপর্যন্ত খেলা ৮৩ টি একদিনের ম্যাচে আফগানদের জয় ৪২ টিতে অন্যদিকে পরাজয় ৩৯ টিতে। সাম্প্রতিক সময়ে আরো ধারাবাহিকভাবে ভালো করছে দলটি। তাই দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় রশিদ খানের স্বপ্নটাও বড়।

দেশকে গর্বিত করতে চান রশিদ খান, “আমি ক্রিকেট খেলি দেশকে জয় এনে দিতে, বিশ্ব ক্রিকেটে আফগানিস্তানকে গর্বিত করতে। এখন আমি বিশ্বসেরাদের বিপক্ষে খেলতে চাই এবং সেরা দলগুলোকে তাদের ঘরের মাঠে চ্যালেঞ্জ জানাতে চাই।” 

অন্যদিকে এই ক্রিকেটারের জীবনের লক্ষ্য আফগানিস্তানকে বিশ্বকাপ এনে দেয়া। রশিদ খান বলেন, “আমি আফগানিস্তানকে ক্রিকেট বিশ্বকাপ এনে দিতে চাই। এটাই আমার জীবনের চূড়ান্ত লক্ষ্য।”

উল্লেখ্য, জাতীয় দলের হয়ে এপর্যন্ত ২৯ টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন রশিদ খান। ২৭ ইনিংসে বল করে নিয়েছেন ৬৩ টি উইকেট। সর্বোচ্চ প্রাপ্তি ১৮ রানে ৭ উইকেট। অন্যদিকে ২৭ টি টি-টোয়েন্টি থেকে পেয়েছেন ৪২ টি উইকেট। টেস্টের আঙ্গিনায় অভিষেকের অপেক্ষায় আছেন এই লেগ স্পিনার।

Related Articles

আরও কঠিন হল শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপ সমীকরণ

কঠিন সমীকরণের সামনে শ্রীলঙ্কা

বাংলাদেশ থেকে সরে যাচ্ছে বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব

মাশরাফির মতামতকেই গুরুত্ব দেবে বিসিবি

তরুণদের দিকে নজর বোর্ড সভাপতির