আরেকবার সুযোগ পেতে পারেন মুশফিক

0

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে বাংলাদেশের ভরাডুবি ও অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের কিছু মন্তব্যের জের ধরে জোর গুঞ্জন উঠেছে অধিনায়কত্ব হারাতে যাচ্ছেন মুশফিক। অনেকেই নতুন অধিনায়ক হিসেবে সাকিব-তামিমের নামও উচ্চারিত করেছেন। টাইগারদের পরের টেস্ট সিরিজ শ্রীলংকার বিপক্ষে। তবে ঘরের মাঠে সেই টেস্ট সিরিজে আর একবার সুযোগ পেতে পারেন মুশফিক। বিসিবির অন্যতম একজন পরিচালক এমন তথ্যই দিয়েছেন।

‘অধিনায়কত্ব হারাচ্ছেন মুশফিক’ এই গুঞ্জন উঠার পর গতকাল বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে নিজের অবস্থান জানান বাংলাদেশের টেস্টে সবচেয়ে সফল এই অধিনায়ক। মুশফিক বলেন, “আমাকে সরানো হবে কি না এই সিদ্ধান্তের ভার বোর্ডের ওপর। তারাই আমাকে এই সম্মান, দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব দিয়েছে। আমি সততার সঙ্গে আমার সেরা চেষ্টা করেছি। তারা যদি সন্তুষ্ট না হয় তাহলে সিদ্ধান্ত নিতে পারে।”

Also Read - 'ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ ভালো দল'

তবে ব্যর্থতার দায় মাথা পেতে নিলেও নিজে থেকে অধিনায়কত্ব ছাড়তে রাজি নন মুশফিক, “আমি কেন সরে যাব? এটা তো ব্যক্তিগত কোনো খেলা না, দলীয় খেলা। অবশ্যই অধিনায়ক হিসেবে সব ব্যর্থতায় দায় আমার দিকেই আসবে। আমি সেটা নিচ্ছিও। দেশকে নেতৃত্ব দেওয়া আমার জন্য অনেক সম্মানের। আমি গর্বিত। এটা হবে বোর্ডের সিদ্ধান্ত। কারণ, তারাই আমাকে এনেছে।”

এদিকে দুই টেস্টেই টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার কারণে ব্যাপক সমালোচনায় পড়তে হয়েছিল মুশফিককে। সংবাদ সম্মেলনে সেটার দায় মুশফিক চাপিয়েছিলেন টিম ম্যানেজমেন্টের উপর। অন্যদিকে দেশে থেকে মুশফিকের সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলে জানিয়েছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

দেশে ফিরে অধিনায়ক মুশফিক ও কোচ চন্ডিকা হাথুরাসিংহের সাথে বিস্তারিত আলোচনায় যাবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। মুশফিকের সংবাদ সম্মেলনে করা অভিযোগে খুশি নন বোর্ড সভাপতি। এমন মন্তব্যের কারণ জানতে চাইবেন। সব বিবেচনা করেই মুশফিকের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হবে। তবে যতদূর জানা গেছে, শ্রীলংকা সিরিজে মুশফিককে আর একবার সুযোগ দিতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড।