‘ওরা ক্যাসিনোয় খেলতে যায়নি’

Share Button

দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার দিন ক্যাসিনোতে জুয়া খেলতে গেছেন জাতীয় দলের তিন তারকা ক্রিকেটার নাসির হোসেন, তাসকিন আহমেদ ও শফিউল ইসলাম- গত দুদিন ধরে এটিই দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় খবর। এই তিন ক্রিকেটার আদৌ এমন কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন কি না সেটি নিশ্চিত হওয়া না গেলেও একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদন অনুসরণে তাদের মুন্ডুপাত চলছে সমানতালে।

তবে ক্রিকেটারদের এই দুঃসময়ে তাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বিসিবির সাবেক সভাপতি ও আসন্ন নির্বাচনের সভাপতি পদপ্রার্থী নাজমুল হাসান পাপন। তিনি জানান, ক্রিকেটাররা রাত করে হোটেলে ফিরলেও ক্যাসিনোতে যাননি তারা।

Also Read - অনুশীলন শুরু করল রংপুর রাইডার্স

পাপন বলেন, ‘হ্যাঁ একটি দৈনিকে এমন খবর এসেছে। আমরাও জেনেছি। টিম ম্যানেজমেন্টর সঙ্গেও কথা হয়েছে। আমরা এখনই কিছু বলতে পারব না। চাইও না। সেটা ঠিকও হবে না। আগে ম্যানেজারের রিপোর্ট হাতে পাই, তারপর বোঝা যাবে। বলাও যাবে।’

নাসির-শফিউল-তাসকিন জুয়া খেলতে ক্যাসিনোতে যাননি দাবি করে পাপন বলেন, ‘তারপরও আমরা যতটা জেনেছি তাহলো- নাসির, শফিউল ও তাসকিন আসলে ক্যাসিনোয় খেলতে যায়নি। আর আমরা এটাও জেনেছি, তারা যেখানে গেছে সেটা আসলে ঠিক ক্যাসিনো নয়। একট মল। যেখানে ক্যাসিনো আছে। আরও নানারকম খাবার দাবার ও খেলাধুলার ব্যবস্থাও আছে। আমরা জেনেছি, ক্রিকেটাররা ক্যাসিনোয় খেলতে যায়নি। সেখানে দক্ষিণ আফ্রিকান সুপার স্টার এবি ডি ভিলিয়ার্স ও রাবাদার সঙ্গে তাদের দেখা হয়েছে। তারা একসঙ্গে সময়ও কাটিয়েছে। কাজেই আমরা মোটামুটি নিশ্চিত তারা ক্যাসিনোয় জুয়া খেলার উদ্দেশে যায়নি।’

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ৩১শে অক্টোবরের একপেশে নির্বাচনে জয়লাভ করে আবারও বোর্ড সভাপতি হতে যাচ্ছেন পাপন। তিন ক্রিকেটারের বিরুদ্ধে বোর্ড কী পদক্ষেপ নেবে, এই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘তাদের অপরাধকে খুব গুরুতর ধরা যাচ্ছে না। তবে আমরা যেটা খুঁটিয়ে দেখব, তাহলো তারা টিমের আইন-শৃঙ্খলা ভেঙে একটু বেশি রাত করে হোটেলে ফিরেছে। সাধারণত রাত ১০টার মধ্যে হোটেলে ফেরার কথা; কিন্তু আমরা জেনেছি ক্রিকেটাররা ১০টা ৩৪ মিনিট পর্যন্ত বাইরে ছিল। এই যে বেশি সময় থাকার কারণেই তাদের শাস্তি হতে পারে।’

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম