SCORE

Breaking News

ঘুষ খেয়ে পিচ টেম্পারিং!

Share Button

ক্রিকেট খেলায় বল টেম্পারিংয়ের সাথে অনেকেই পরিচিত। অনেক নামীদামী খেলোয়াড়ও বল টেম্পারিং করে শাস্তির সম্মুখীন হয়েছেন। কিন্তু তাই বলে পিচ টেম্পারিং! [আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশ সফরে আসছে নেপালি যুবারা]

ঘুষ খেয়ে পিচ টেম্পারিং!

হ্যাঁ, এবার পিচ টেম্পারিং করেই ফেঁসে গেছেন একজন কিউরেটর। ভারতে চলছে স্বাগতিক জাতীয় দল ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ওয়ানডে সিরিজ। প্রথম ওয়ানডে হেরে কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছিল ভারত। দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে কয়েকজন সাংবাদিক বাজিকরের পরিচয়ে দ্বিতীয় ওয়ানডের ভেন্যু পুনেতে কিউরেটর পান্ডুরং সালগাঁওকারকে মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে পিচ টেম্পারিংয়ের লোভ দেখান।

Also Read - সতীর্থদের কাছে সেরাটা চান সাকিব

জানা গেছে, ঘুষের কথা শুনে সাথে সাথেই পিচের ধরণ বদলাতে রাজী হয়ে যান ঐ কিউরেটর। সাংবাদিকরা তাকে বলেছিলেন, দুই জন ক্রিকেটার চান দ্বিতীয় ওয়ানডের পিচে বাউন্স থাকুক। এজন্য পিচে ক্ষত সৃষ্টি করতে হবে। এটা কি সম্ভব? বাজিকরের বেশ ধরে আসা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে এক বাক্যে ঐ কিউরেটর জানান, অবশ্যই সম্ভব। ঐ কিউরেটর পা দিয়ে আঘাত করে পিচের কিছু অংশ নরম করে ফেলেন।

শুধু তা-ই নয়। ঐ সাংবাদিকদের মাঠে এনে পিচের উপর হাঁটার অনুমতিও দেন পান্ডুরং। বিসিসিআইয়ের আইন অনুযায়ী যা খুব বড় ধরণের একটি অপরাধ।

ঐ কিউরেটরকে সাংবাদিকদের গোপন ক্যামেরার সামনে অবলীলায় কথা বলতেও দেখা গেছে। এমনকি পিচ টেম্পারিং নিষিদ্ধ কি না- এই প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, ‘অবশ্যই নিষিদ্ধ। তবে আমরা আছি না?’

এমন অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতে বেশ বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড। ইন্ডিয়া টুডে’র বিচক্ষণ সংবাদকর্মীদের এমন প্রতিবেদন প্রকাশের পরপরই চাকরীচ্যুত করা হয়েছে কিউরেটর পান্ডুরং সালগাঁওকারকে। ভারত দলের বিপক্ষে অনেক আগে থেকেই উইকেটের সুবিধা কাজে লাগানোর অভিযোগ রয়েছে। যদিও ঐ অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ হয়নি কখনই। তবে পুনের এই পিচ টেম্পারিং কাণ্ডে এবার পুরনো অভিযোগই মাথাচাড়া দিয়ে উঠল। এ নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ড কী পদক্ষেপ গ্রহণ করে, দেখার বিষয় এখন সেটিই।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

Related Articles

ভারতের পিচ কাণ্ড নিয়ে তদন্তে আকসু