SCORE

Breaking News

টানা ১২ ম্যাচ হারলো শ্রীলঙ্কা

Share Button

পাঁচ ম্যাচের একদিনের সিরিজের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ৯ উইকেটে হেরেছে শ্রীলঙ্কা। যার ফলে ৫-০ তে হোয়াইটওয়াশ হলো লঙ্কানরা। পাশাপাশি টানা ১২ টি একদিনের ম্যাচে পরাজয়ের স্বাদ পেলো উপুল থারাঙ্গার দল। [আরো পড়ুনঃ সিলেট আসছেন ওয়াকার ইউনিস]

শারজাহতে সিরিজের শেষ ম্যাচে টসে জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক উপুল থারাঙ্গা। কিন্তু থারাঙ্গার সিদ্ধান্তকে ভুল প্রমাণ করতে সময় নেন নি মাত্র এক ম্যাচের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন পাকিস্তানি পেসার উসমান খান। মাত্র ৮ রানেই ৪ উইকেট তুলে নেন এই ডানহাতি পেসার। মারাত্মক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পরা শ্রীলঙ্কা আর উঠে দাঁড়াতে পারে নি। দলীয় স্কোর ২০ রানের মাথায় নিজের পঞ্চম উইকেট তুলে নেন উসমান খান। আর এই ৫ উইকেট পেতে উসমান বল করেছিলেন মাত্র ২১ টি।

Also Read - সিলেট আসছেন ওয়াকার ইউনিস

প্রথম ৬ ব্যাটসম্যানের মাঝে মাত্র একজন দুই অঙ্কের ঘর স্পর্শ করতে পেরেছে। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারানো শ্রীলঙ্কা ইনিংস শেষ হয় ১০৩ রানে। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন থিসারা পেরেরা। পাকিস্তানের পক্ষে উসমান খান ৫ উইকেট নেন। এছাড়া হাসান আলী ও সাদাব খান দুইটি করে উইকেট নেন।

হোয়াইটওয়াশ করতে ১০৪ রানের টার্গেট হেসে খেলেই পার করেছে পাকিস্তান। ১৬.৪ ওভারে ওপেনিং জুটি থেকেই আসে ৮৪ রান। ৪৭ বলে ৪৮ রান করে ফাখার জামান বিদায় নিলেও দলের জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছেড়েছেন আরেক ওপেনার ইমাম-উল-হক। ৬৪ বলে ৪৫ রানে অপরাজিত ছিলেন এই বামহাতি ব্যাটসম্যান। শ্রীলঙ্কার পক্ষে একমাত্র উইকেটটি পেয়েছেন ভান্দার্সে।

উল্লেখ্য, তৃতীয় বোলার হিসেবে ২০০১ সালের পর টানা সবচেয়ে কম বলে ৫ উইকেটে নেবার কৃতিত্ব দেখান উসমান খান। এর পূর্বে ২০০৩ সালে বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজের প্রথম ১৬ বলে ৫ উইকেট নিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কান পেসার চামিন্ডা ভাস। অপর ঘটনাটিও ২০০৩ সালের বিশ্বকাপে। কানাডার বিপক্ষে ডাচ বোলার ফন ডার গাগটেন প্রথম ২০ বলে ৫ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ 

শ্রীলংকাঃ ১০৩/১০ (২৬.২ ওভার)
থিসারা পেরেরা ২৫
উসমান খান ৫/৩৪

পাকিস্তানঃ ১০৫/১ (২০.২ ওভার) 
ফাখার জামান ৪৮, ইমাম-উল-হক ৪৫*

ফলাফলঃ পাকিস্তান ৯ উইকেটে জয়ী 
ম্যাচ সেরাঃ উসমান খান

Related Articles

ইংল্যান্ডের নতুন বোলিং কোচ সিলভারউড

৬ রানের আক্ষেপ নিয়ে সিরিজ হারল নিউজিল্যান্ড

লাহোরেও জিতল পাকিস্তান

টি-২০ সিরিজেও পাকিস্তানের জয়

পাকিস্তানে যাচ্ছেন না মালিঙ্গা-থারাঙ্গারা