টেস্ট অধিনায়কত্ব হারাচ্ছেন মুশফিক!

0

দক্ষিণ আফ্রিকায় একদমই সুবিধা করতে পারছে না বাংলাদেশ। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৩৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ের পর
চলমান দ্বিতীয় টেস্টে আরো ভয়াবহ অবস্থা। বাংলাদেশের এমন পারফরম্যান্সে চারিদিক সমালোচনামুখর। তবে সবকিছু ছাপিয়ে দুই টেস্টেই বাংলাদেশ অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের টসে জিতে বোলিং নেবার সিদ্ধান্তে অবাক হয়েছেন ক্রিকেট বিশ্লেষকরা। পাশাপাশি মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্ব নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন। সংবাদ সম্মেলনে এসে উল্টা হতাশা প্রকাশ করে মুশফিকের করা মন্তব্যকেও অধিনায়কসুলভ নয় বলে জানিয়েছেন অনেকেই। প্রথম আলোর তথ্যমতে টাইগারদের পরবর্তী টেস্ট সিরিজে হয়তো অধিনায়ক মুশফিককে দেখা যাবে না।

ঘরের মাঠে শ্রীলংকার বিপক্ষে টাইগারদের পরবর্তী টেস্ট সিরিজ। ইতোমধ্যে সেই টেস্ট সিরিজে অধিনায়ক হিসেবে বিকল্প কাউকে ভাবা শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিসিবি পরিচালক প্রথম আলোকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সেই পরিচালক জানিয়েছেন, “আমরা মুশফিকের বিকল্প ভাবতে শুরু করেছি। টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে তাঁর কিছু বক্তব্য গ্রহণযোগ্য নয়। অনেক সিদ্ধান্তও ভুল হচ্ছে।”

Also Read - ব্যাটসম্যানদের অসহায় আত্মসমর্পণের কারণ জানালেন লিটন

তবে মুশফিকের বদলে কে হবেন বাংলাদেশের পরবর্তী টেস্ট অধিনায়ক? এই দৌড়ে এগিয়ে আছেন তিন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার- সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিসিবির আগ্রহ সাকিবের দিকেই বেশি। তবে এখনো সিদ্ধান্ত নেয় নি বিসিবি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সেই পরিচালক আরো জানিয়েছেন, “পরবর্তী টেস্ট সিরিজের আগে আমাদের হাতে যথেষ্ট সময় আছে। মুশফিকের পরিবর্তে কাকে দায়িত্ব দেওয়া হবে, সেই আলোচনা এখনো হয়নি। বোর্ড নিশ্চয়ই ওদের সঙ্গে কথা বলবে।” 

উল্লেখ্য, প্রথম টেস্টের পর দ্বিতীয় টেস্টেও টস জিতে বোলিং নিয়ে হতাশ করেছেন মুশফিক। গতকাল (৭ অক্টোবর) মুশফিকের এমন সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। দেশে থেকে মুশফিকের কঠোর সমালোচনা করেছেন বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, “ব্যাটিং না নেবার কোনো যুক্তিই হতে পারে না। আপনি কোনো লজিক দিয়েই তা বুঝাতে পারবেন না। এটা একমাত্র মুশফিকেই বলতে পারবে।”