SCORE

Breaking News

দুশ্চিন্তার নাম কিম্বার্লির বাতাস

Share Button

১৫ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ দলের দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে কিম্বার্লির বাতাস। এই ম্যাচের ভেন্যু কিম্বার্লিতে ঋতু অনুযায়ী যে বাতাস বইছে, তার সাথে অভ্যস্ত নন বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা। আর এই তীব্র বাতাসে খেলার সময় সমস্যা দেখা দেয় কি না, সেটাই এখন বড় দুশ্চিন্তা।

কিম্বার্লি

বাতাসের সমস্যায় বাংলাদেশ দল পড়েছিল চলতি বছর নিউজিল্যান্ড সফরেও। কিউইদের বিপক্ষে সেই ভোগান্তি থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার তাই বাতাস থেকে সুবিধা নিতে চাইছে বাংলাদেশ। অনুশীলনের সময় এ নিয়ে আলাদাভাবে কাজও করেছেন কোচ-অধিনায়ক।

Also Read - 'নেতিবাচক কথা মেনে নিয়েই খেলতে হবে'

কিম্বার্লির ডায়মন্ড ওভাল স্টেডিয়ামের অবস্থান শহর থেকে বেশ দূরে। খোলামেলা জায়গায় অবস্থিত স্টেডিয়ামটির আশেপাশে নেই কোনো স্থাপনা। মাঠে গ্যালারির অভাব, ফলে বাতাস চলাচলের সুযোগ প্রচুর। এই ব্যাপারটিই সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশের জন্য।

বাতাস যে বাংলাদেশের কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে, সেটি স্পষ্ট সংবাদ সম্মেলনে টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজার কথায়ও, ‘বাতাসে ঝামেলা আছে। একপাশে একটু খোলা তো। এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে।’

এই মাঠে ২০১৩ সালের পর কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেনি স্বাগতিক দল। যদিও ঘরোয়া ক্রিকেটের আয়োজন ভেন্যুটিতে হচ্ছে নিয়মিতই। ফাফ ডু প্লেসিসের দল তাই কিছুটা হলেও অভিজ্ঞতা রাখে মাঠটি সম্পর্কে।

সংবাদ সম্মেলনে প্লেসিস বলেন বাতাসের সুবিধা কাজে লাগানোর কথা, ‘বাতাস দুই দলের কারোর জন্যই ভালো কিছু নয়। তবে আমাদের এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। অধিনায়ক হিসেবে কৌশলগত দিক থেকে বাতাসকে কিভাবে ব্যবহার করবো তা খুব গুরুত্বপূর্ণ। ব্যাটিং-বোলিং দুই ক্ষেত্রেই বাতাসকে আপনার সুবিধায় কাজে লাগাতে পারেন। আমার মনে হয়, কাল এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ব্যপার হবে।’

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর আর কোনো ওয়ানডে খেলা হয়নি বাংলাদেশের। ম্যাচ-খরা কাটানোর পাশাপাশি বাংলাদেশকে এই ম্যাচে তাই একটু কৌশলী হয়েই খেলতে হবে।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

Related Articles

ইনজুরির কারণে টি-২০ সিরিজে নেই ডু প্লেসিস

প্রোটিয়াদের মুখে খুশির ঝিলিক

সাকিবে ভরসা মাশরাফির

‘দেশের ক্রিকেটের জন্য বিপদসংকেত’

হোয়াইটওয়াশ এড়াতে বাংলাদেশের লক্ষ্য ৩৭০