বিসিবির এজিএম অনুষ্ঠিত

Share Button

অনেক জলঘোলার পর অবশেষে সম্পন্ন হল দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বার্ষিক সাধারণ সভা- এজিএম। সোমবার রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে বেলা সাড়ে এগারোটায় শুরু হয় অনুষ্ঠানের আয়োজন।

দল নির্বাচনে দু'দিন সময় নিলো বোর্ড

পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হয় অনুষ্ঠান। এরপর ২০০০ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মারা যাওয়া কাউন্সিলরদের স্মরণে পালন করা হয় এক মিনিট নীরবতা। এরপর শুরু হয় অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা।

Also Read - বিএসইসির সাথে সাকিবের নতুন যাত্রা

বিসিবির বর্তমান কমিটি দায়িত্ব নেওয়ার পর বিগত চার বছরে এটিই প্রথম এবং একমাত্র এজিএম। যদিও এটি প্রতি বছরই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

একই দিনে অনুষ্ঠিত হয় বিশেষ সাধারণ সভা- ইজিএমও। যদিও আলোচিত ক্রিকেট সংগঠক ও সাবেক বিসিবি প্রধান সাবের হোসেন চৌধুরীসহ ৩৭ জন কাউন্সিলর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন না। ১৭০ কাউন্সিলরের মধ্যে ১৩৩ জন কাউন্সিলর অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।

এজিএমের পর ক্রিকেট পাড়ায় প্রধান প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে, কবে অনুষ্ঠিত হবে বিসিবির নির্বাচন। এ বিষয়ে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, এখন তো এটা (সংশোধিত গঠনতন্ত্র) আমরা এনএসসিতে পাঠাব আজকে যেহেতু এটা শেষ হয়ে গেল এনএসসিতে সাধারণ যে সিস্টেমটা আছে আমাদের গঠনতন্ত্রে যা আছে আমরা এনএসসির কাছে পাঠাব স্বীকৃতির জন্য এনএসসি থেকে অনুমোদন হওয়ার সাথে সাথে একটা বোর্ড মিটিং ডাকব বোর্ড মিটিং ডেকে আমরা একটা নির্বাচন কমিশন গঠন করব তারপর নির্বাচন কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে কবে, কীভাবে নির্বাচন হবে

আগামী ১৩ অক্টোবর শেষ হবে বিসিবির চলতি কমিটির মেয়াদ। মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে নির্বাচন সম্ভব কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে পাপন বলেন,  ‘আমার জানা মতে, আমরা এখানে কন্টিনিউ করব নাকি মেয়াদ বাড়ানো হবে নাকি কোনো এডহক কমিটি আসবে সেটা কিন্তু গঠনতন্ত্রে কোনো গাইডলাইন নেই কাজেই এটার ব্যাপারে আমাদের এনএসসির হেল্প চাইতে হতে পারে তবে গঠনতন্ত্রে যেটা বলা আছে, নির্বাচনের পরে ১৫ কার্যদিবস পরে ১৬ কার্যদিবসের মধ্যে নতুন নির্বাচিত কমিটির কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে হবে আমাদের জানা মতে, মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই নির্বাচন ঘোষণা করে দেই তাহলে যে জিতে আসবে নির্বাচনের পর তাদের সেই সময় আমরা দায়িত্ব হস্তান্তর করব এটাই আমাদের জানা

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম