SCORE

সর্বশেষ

মাইলফলকের সামনে মাশরাফি

নতুন একটি মাইলফলকে কাছে দাঁড়িয়ে রয়েছেন বাংলাদেশ দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে থাকা বাংলাদেশের দলের হয়ে রোববার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নামলেই অধিনায়ক হিসেবে ৫০টি ম্যাচে নেতৃত্ব দেওয়ার রেকর্ড গড়বেন তিনি। [আরো পড়ুনঃ বৃষ্টিতে ভেসে গেলো ‘এ’ দলের ম্যাচ]

মাইলফলকের সামনে মাশরাফি

অধিনায়ক হিসেবে ৫০টি ওয়ানডে খেলার কীর্তি মাশরাফি গড়তে যাচ্ছেন তৃতীয় বাংলাদেশি হিসেবে। এর আগে হাবিবুল বাশার ও সাকিব আল হাসানও খেলেছিলেন অধিনায়ক হিসেবে অন্তত ৫০টি করে ওয়ানডে ম্যাচ। ৬৯টি ম্যাচ খেলে অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন মুশফিক, সাকিব অধিনায়ক হিসেবে খেলেছেন ঠিক ৫০টি ম্যাচই।

Also Read - আবারও হারের বৃত্তে শ্রীলঙ্কা

২০০৯ সালে প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে নিয়োগ পান মাশরাফি। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়ে প্রথম টেস্টেই ইনজুরিতে পড়েন তিনি। এতে মাঠের বাইরে চলে যেতে হয় বেশ কয়েকদিনের জন্য। অধিনায়ক হিসেবে সেটিই ছিল মাশরাফির প্রথম এবং একমাত্র টেস্ট।

ওয়ানডেতে অধিনায়ক হিসেবে মাশরাফির অভিষেক হয় ২০১০ সালে। নেতৃত্বে নিয়োগ পাওয়ার এক বছর পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ব্রিস্টলে বাংলাদেশকে এক ঐতিহাসিক জয় এনে দেন তিনি। তবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঢাকায় তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১ ওভারে ৭ রান দেওয়ার পর আবারও ইনজুরির শিকার হন তিনি। এতে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়েন আবারও।

ঐ সময়ে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সাকিব। পরবর্তীতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত মুশফিকুর রহিম দলকে নেতৃত্ব দেন। টানা ব্যর্থতায় মুশফিকের অধিনায়কত্ব কেড়ে নেওয়ার পর নতুন করে নেতৃত্ব তুলে দেওয়া হয় মাশরাফির হাতে, আর তাতেই পাল্টে যায় বাংলাদেশ।

মাশরাফি অধিনায়ক হওয়ার পর একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে একের পর এক সাফল্য পেতে থাকে বাংলাদেশ। তাঁর নেতৃত্বেই বাংলাদেশ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত উত্তীর্ণ হয়, ভারত, পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ জিতে এবং আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সেমিফাইনালে খেলে। নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত এই ক্রিকেটারের নেতৃত্বে নবম স্থান থেকে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসে বাংলাদেশ। যদিও বর্তমানে দলের র‍্যাংকিং সপ্তম।

এখন পর্যন্ত মাশরাফির অধিনায়কত্বে খেলা ৪৯টি ওয়ানডের ২৭টিতেই জিতেছে বাংলাদেশ, হেরেছে ২০টিতে। জয়ের হার ৫৭.৪৪, যা কোনো বাংলাদেশি অধিনায়কের পক্ষে সর্বোচ্চ। সিরিজের শেষ ম্যাচ জিতে মাশরাফির ৫০তম ওয়ানডে স্মরণীয় থাকবে, এটাই এখন সবার প্রত্যাশা।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

Related Articles

জয়ে খুশি ডুমিনি

‘সবচেয়ে কঠিন এই সময়টা’

স্বেচ্ছায় নেতৃত্ব ছাড়ছেন না মুশফিক!

সাকিবকে ছাড়িয়ে গেলেন মাশরাফি