‘মামলার প্রভাব পড়ছে মাঠের খেলায়’

0

প্রোটিয়াদের বিপক্ষে পূর্নাঙ্গ সিরিজ খেলতে বাংলাদেশ দল এখন অবস্থান করছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। প্রায় দেড়মাসব্যাপি সফরে স্বাগতিকদের বিপক্ষে টাইগাররা খেলবে দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-২০।

বিসিবি বস পাপনা

ইতোমধ্যে পচেফস্ট্রুমে একটি টেস্ট খেলেও ফেলেছে বাংলাদেশ। যদিও ঐ ম্যাচে প্রতিরোধ দূরে থাক, সফরকারীরা হেরেছে বড় ব্যবধানে।

Also Read - ওয়ানডে দলে ফিরলেন মুমিনুল হকও

সম্প্রতি সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, বিসিবির গঠনতন্ত্র নিয়ে চলমান জটিলতা ও মামলা-মোকদ্দমাই ক্রিকেটারদের পারফরমেন্সের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে পাপন বলেন, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটকে ধ্বংস করাই এসবের উদ্দেশ্য। এগুলোর প্রভাব ক্রিকেটের সব জায়গায় পড়ছে। যদি মামলা না থাকত, আমরা এজিএম আগেই করে ফেলতাম, নির্বাচন আগেই ঘোষণা করে ফেলতাম।’

চলমান ঘোলাটে পরিস্থিতিতে অনেকটা হুট করেই এজিএম ও ইজিএম আয়োজন করতে হয়েছে বিসিবিকে। আর এই কারণে মাঠে বসে টাইগারদের সমর্থন জোগাতে পারছেন না বলে জানালেন বিসিবি সভাপতি- ‘আপনারা তো জানেন, আমি নিজে সবসময় খেলা দেখতে যাই। দলের সঙ্গে সব সময়ই থাকি, তাদের উৎসাহ দেই, তাদের একটু সাহস জোগাই। কিন্তু তাড়াহুড়ো করে এজিএম ডাকার জন্য এবার আমরা কেউ যেতেও পারলাম না।’

তিনি আরো বলেন, ‘খুব খারাপ লাগছে- দক্ষিণ আফ্রিকার মতো জায়গায় ওরা একা খেলছে। সেখানে বোর্ডের কেউ নেই। এমন কখনও হয় না। ওরা খেলছেও ভিন্ন পরিবেশে। ওদের মধ্যে একটু হয়তো ভয়ও আছে।’

বোর্ডের শীতল পরিস্থিতির প্রভাব খেলায়ও পড়ে জানিয়ে পাপন বলেন, ‘এসবের একটা প্রভাব মাঠের খেলায় পড়ে। এই সময়েও তো ওদের পাশে আমাদের থাকার দরকার ছিল। এই যেসব মামলা বিষয়ক খবর মাথার মধ্যে কি ঢোকে না? খেলোয়াড়দের মধ্যেও ঢুকছে!’

মামলার খবরাখবর আইসিসির কাছেও পৌঁছে গেছে বলে জানান বিসিবি সভাপতি। তিনি বলেন, ‘সামনের নয় তারিখ যাচ্ছি আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে। গঠনতন্ত্র যা যা হয়েছে ওখানে চূড়ান্ত হবে। ওদের মধ্যেও একটা বিভ্রান্তি ছড়ানো হল। এছাড়া আমি কোনো লাভ দেখছি না। যদি একটা উদাহরণ দেখাতে পারেন যে, ওনারা যা করছে তাতে বাংলাদেশ ক্রিকেট লাভবান হবে- তাহলে মেনে নিতাম।’

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা বিসিবিকে বিভিন্ন আইনি জটিলতার মুখোমুখি হতে হয়েছে। এ নিয়ে হয়েছে অনেক জলঘোলাও।

  • সিয়াম চৌধুরী, প্রতিবেদক, বিডিক্রিকটাইম

    সম্পাদনায়
    আব্দুর রহমান, বিডিক্রিকটাইম