আমি বাংলাদেশকে খুব ভালোবাসিঃ টিম ব্রেসনান

Share Button

চলমান বিপিএলে সিলেট সিক্সার্সের জার্সি গায়ে মাঠ মাতাচ্ছেন ইংলিশ পেসার টিম ব্রেসনান। বিপিএলকে তিনি দেখছেন ভালো একটা টুর্নামেন্ট হিসেবে। সম্প্রতি অনলাইন সংবাদমাধ্যম রাইজিংবিডি’র সাথে আলাপকালে তার কথায় উঠে আসে বিপিএল সংক্রান্ত বিভিন্ন ভাবনার কথা।

আমি বাংলাদেশকে খুব ভালোবাসিঃ টিম ব্রেসনান

ব্রেসনান বলেন, এটা ভালো একটি টুর্নামেন্ট। গেল বছরের থেকে এ বছরে ভালোমানের বিদেশি ক্রিকেটার এসেছে। এ কারণে টুর্নামেন্টের হাইপও বেড়েছে। টি-টোয়েন্টি সব সময়ই কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা নিয়ে আসে। এ বছর অনেক ইংলিশ ক্রিকেটারও এসেছে। ভালো টুর্নামেন্ট হচ্ছে। আমি ভবিষ্যতেও অংশগ্রণ করতে ইচ্ছুক। অবশ্যই বিপিএল (বাংলাদেশের ক্রিকেটের উন্নতির পেছনে) ভূমিকা রাখছে। বিদেশি ক্রিকেটাররা আসছে। তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা খেলছে। এতে তাদেরও উন্নতি হচ্ছে। তাদের খেলার উন্নতি হচ্ছে। যেটা আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রভাব রাখবে।

Also Read - 'সফল হয়েছি বলে খুব খুশি লাগছে'

চলমান আসর বিপিলের পঞ্চম আয়োজন হলেও ব্রেসনান বিপিএলে খেলছেন এই প্রথমবারই। বিপিএলের খেলার ইচ্ছে কীভাবে তৈরি হল- এমন প্রশ্নের জবাবে ইংলিশ ক্রিকেটার বলেন, আমি মনে করি এটি আমার আরেকটি সুযোগ। ভিন্ন আরেকটি টুর্নামেন্ট খেলা। এ ধরণের টুর্নামেন্ট বেশ উপভোগ করি। আমি বাংলাদেশকে খুব ভালোবাসি। এখানকার মানুষ খুবই বন্ধুত্বপরায়ণ। এখানে দর্শক, সমর্থক দারুণ। মাঠে তাদের চিৎকার, সমর্থন দারুণ উত্তেজনা দেয়, রোমাঞ্চ ছড়ায়।

বাংলাদেশে সময়টা বেশ ভালো উপভোগ করছেন জানিয়ে ব্রেসনান বলেন, আমি এখানে আসতে পছন্দ করি। দারুণ একটি জায়গা। এখানকার অনুশীলনের ব্যাবস্থাও উন্নতমানের। টার্নিং উইকেটে নিজের প্রস্তুতির দারুণ একটি সুযোগ। প্রতিটি মুহূর্ত উপভোগ করছি। বিপিএল দারুণ সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে।

নিজ দল সিলেট সিক্সার্স প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সিলেট সিক্সার্স প্রথমবার হিসেবে ভালো দল গুছিয়েছে। তারা ভালোভাবেই প্রস্তুতি নিয়েছে এবং সকল সুবিধা দিচ্ছে। দলের ক্রিকেটাররা বেশ ঐক্যবদ্ধ। ম্যানেজম্যান্ট এবং ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক বেশ নম্র। ভালো ও হাসিখুশি লোকজন আশেপাশে আছে।

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সময়ের সাফল্য সম্পর্কে আলাপকালে ব্রেসনান প্রশংসা করেন সাকিব আল হাসানেরও। তিনি বলেন, এ মুহূর্তে দলটা দারুণভাবে মিশে আছে। তারা সব সময়ই ভালো ছিল। কিন্তু যখন মোমেন্টাম চলে আসে তখন থেকেই ধারাবাহিক ফলাফল পাওয়া যায়। সিনিয়র ক্রিকেটাররা দায়িত্ব নিচ্ছে এটা ভালো দিক। সাথে তরুণরাও প্রতিনিধিত্ব করছে এবং অবদান রাখছে। ক্রিকেট হচ্ছে দলগত খেলা। কিন্তু সেখানে একজন ব্যতিক্রম এবং সেরা খেলোয়াড় থাকে। প্রত্যেক দলেই রয়েছে। বাংলাদেশের রয়েছে সাকিব। আমার মতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশকে নিয়ে চিন্তা ও ভাবনা সাকিব পাল্টে দিয়েছে। বিশ্ব ক্রিকেটে ও অন্যতম সেরা একজন অলরাউন্ডার।

আরও পড়ুনঃ মাঠ মাতানোর ইচ্ছা গেইলের