‘ক্লোজ ম্যাচে এক বল বেশি হওয়া বড় ভুল’

Share Button

বিরল এক ভুলের সাক্ষী হল বিপিএল। চলমান বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বের মঙ্গলবারের প্রথম খেলায় মুখোমুখি হয়েছিল রংপুর রাইডার্স ও সিলেট সিক্সার্স। ম্যাচে সিলেটের বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বিকে ইনিংসের ষোলতম ওভারে নির্ধারিত ৬ বলের চেয়ে একটি বল বেশি করান আম্পায়াররা। এমন ঘটনার পর স্বভাবতই ক্রিকেট অঙ্গনে সৃষ্টি হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা।

faruk ahmed

আর সিলেট সিক্সার্স কর্তৃপক্ষ এই ঘটনাকে দেখছে ম্যাচ হারের কারণ হিসেবে। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচটি জিততে রংপুরকে অপেক্ষা করতে হয়েছে তাদের ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত। সিলেট সিক্সার্সের টেকনিক্যাল অ্যাডভাইজার এবং জাতীয় দলের সাবেক প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদের মতে, আম্পায়াররা এই ভুল না করলে ভিন্ন হতে পারত ম্যাচের চিত্র।

Also Read - মাশরাফি ক্রিজে থাকলে ধীর হয়ে যান গেইলও!

অনলাইন সংবাদমাধ্যম জাগোনিউজের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘এটা একটা ক্লোজ ম্যাচ। এখানে একটি বল বেশি হবার অর্থ হিসেব বদলে যাওয়া। ধরেন, আমরা যদি খুলনা টাইটান্সের মত ১১১ রানে অলআউট হতাম, আর আমাদের প্রতিপক্ষের রান যদি এক বা দুই উইকেটে ৮০-৯০ থাকতো তখন ওই ভুলের চড়া মাশুল গুনতে হতো না। কারণ, তার আগেই আমাদের সম্ভাবনা শেষ হয়ে যেতো; কিন্তু ঘটনাটা তো তেমন নয়। আমরা ১৭৩ রানের বড় স্কোর গড়েছি। ম্যাচও পেন্ডুলামের মত দুলছিল। আম্পায়ার যখন ওই এক বল বেশি খেলিয়েছেন, তখনো দু দল প্রায় সমান সমান অবস্থায়। সেখানে অমন একটি ভুল অনেক বড়।’

তার দাবি, ইনিংসে এক বল বেশি হওয়ায় পাল্টে গেছে ম্যাচের চালচিত্র, ‘অবশ্যই চালচিত্র অন্যরকম হয়েছে। এক বল বেশি হওয়ায় সিঙ্গেলস নিয়ে স্ট্রাইকে চলে গেছে রবি বোপারা। তিনি তখন ওয়েল সেট। কাজেই পরের ওভারে তিনি স্ট্রাইক পাওয়ায় রংপুরের হিসেব আরও সহজ হয়ে গেছে। সোহেল তানভিরের করা ১৭ নম্বর ওভারের পাঁচ বল স্ট্রাইক পেয়ে বোপারা এক বিশাল ছক্কাসহ তুলে নেন ১২ রান। আর দ্বিতীয় বলে মাশরাফির প্যাডে লেগে আসে একটি সিঙ্গেল। মোট ১৩ রান পায় রংপুর। তাতেই তাদের হিসেবে তুলনামুলক সহজ হয়ে যায়।’

সিলেট সিক্সার্সের দাবি অনুযায়ী, মঙ্গলবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দিনের প্রথম ম্যাচে সিলেটের বোলার কামরুল ইসলাম রাব্বিকে দিয়ে ওভারে একটি বল বেশি করানো হয়েছে। রাব্বি আম্পায়ারকে এ ব্যাপারে অবগত করলেও আম্পায়ার অটল ছিলেন তার সিদ্ধান্তে। সিলেট সিক্সার্সের সিইও ইয়াসির ওবায়েদ জানিয়েছেন, এই অভিযোগের ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন পেশ করবেন দলের অধিনায়ক নাসির হোসেন।

আরও পড়ুনঃ হাই প্রোফাইল কোচের খোঁজে বিসিবি