জয়ের কৃতিত্ব সবাইকে দিলেন নাসির

Share Button

টানা তিন ম্যাচে তিন জয়- নবাগত সিলেট সিক্সার্স দলটি এখনও বিপিএলে হারের মুখ দেখেনি। এই অনন্য কীর্তি দলটি কয়দিন ধরে রাখতে পারবে সেটি বড় এক প্রশ্নই। তবে তিন ম্যাচে অপরাজিত তকমা গায়ে লাগানোর সাথে দলটি জানান দিয়েছে, আসর শুরুর আগে সাব্বির-নাসিরদের পক্ষে বাজি ধরার কেউ না থাকলেও ভালো করার সামর্থ্য আছে সুরমা পাড়ের দলটির।

জয়ের কৃতিত্ব সবাইকে দিলেন নাসির

ম্যাচ শেষে নাসির জয়ের কৃতিত্ব দেন দলের সবাইকেই। তিনি বলেন,আজকের জয়ের পুরো কৃতিত্ব দলের সবার। দলীয় পারফর্মেন্সের কারণেই এই জয় পেয়েছি আমরা। ঘরের মাঠে টানা তিন ম্যাচে জিতে আমরা দারুণ উচ্ছ্বসিত।’

Also Read - এক ম্যাচেই স্টার্কের দুই হ্যাট্রিক!

নাসির আরও বলেন, দলের বোলাররা খুব ভালো বোলিং করেছে। রাজশাহী শুরুতে যেভাবে শুরু করেছিলো, তাদের আটকানোর জন্য বোলারদের খুব ভালো বল করতে হত আর তারা সেটাই করেছে। দলের ব্যাটসম্যানরাও প্রতিনিয়ত রান পাচ্ছে।’

ম্যাচের নায়ক ও ম্যান অব দা ম্যাচ পুরষ্কার পাওয়া দানুশকা গুনাথিলাকাও উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা একটি দল হিসেবে খুশি। এই দলটা অবশ্যই গর্ব করার মতো। আমার ভালো ফর্ম আসরের শেষ পর্যন্ত ধরে রাখতে চাই। সামনে অনেক ম্যাচ বাকী, দেখি কী হয়।’

সিলেট সিক্সার্স দুইশ পেরোনো ইনিংস করায় জয় তুলে নেওয়া একটু কঠিনই ছিল এখন পর্যন্ত আসরের জয়হীন দল রাজশাহী কিংসের জন্য। তবে দলের আইকন ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম মনে করছেন, ২০০ রান অতিক্রম করা অসম্ভব কিছু ছিল না।

মুশফিক বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম ২০০ রান অতিক্রম করা সম্ভব। হয়তো কঠিন ছিল, কিন্তু অসম্ভব ছিল না। কিন্তু আমরা উইকেট হারিয়ে ফেলেছি। তবে আমার মনে হয় আমরা ১০-১৫ রান বেশি দিয়েছি।’

সিলেটকে কৃতিত্ব দিয়ে মুশফিক আরও বলেন, ‘কিছু ইতিবাচক দিক অবশ্যই ছিল। কিন্তু জিততে হলে তিন বিভাগেই ভালো করতে হবে। এই আসরে সত্যিকার অর্থেই দুর্দান্ত খেলছে সিলেট। আশা করি, পরবর্তী ম্যাচেই আমরা ঘুরে দাঁড়াবো।’

আরও পড়ুনঃ ম্যাচ প্রিভিউঃ রংপুর বনাম চিটাগাং , সিলেট বনাম খুলনা