SCORE

Breaking News

জয় দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু রংপুর রাইডার্সের

Share Button

একেএস বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টির ৫ম আসরের প্রথম দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে ড্যারেন স্যামির রাজশাহী কিংসকে ৬ উইকেটে বিপিএলের যাত্রা শুরু করেছে মাশরাফি মুর্তজার রংপুর রাইডার্স।RAN VS RAJ

দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যায় টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন রাজশাহীর অধিনায়ক স্যামি। ব্যাট হাতে শুরুটা দারুণ হয়নি রাজশাহীর। দলীয় ১২ রানেই মুমিনুল হককে (৯) ফেরান স্পিনার সোহাগ গাজী। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে হাল ধরেছিলেন লুক রাইট ও রনি তালুকদার।

দু’জনে মিলে ৩৯ রানের জুটি গড়েন। তবে দ্বিতীয় উইকেটের জুটিতে অর্ধেকের বেশি রান এসেছে রনির ব্যাট থেকে। ব্যক্তিগত মাত্র ১১ রানেই নাজমুল ইসলাম অপুর বলে সাজঘরে ফিরেন লুক রাইট। ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেননি রাজশাহীর আইকন প্লেয়ার মুশফিকুর রহিম।

Also Read - শেষ চার লক্ষ্য চিটাগং অধিনায়ক মিসবাহর

৮ বলে ১১ রান করে অপুর বলে আউট হন তিনি। মুশফিকের পাশাপাশি রান পাননি সামিত প্যাটেলও। মাত্র ৩ রান করেই মালিঙ্গার বলে আউট হন তিনি। অর্ধশতক থেকে তিন রান দূরে থেকে ৪৭ রান করে রংপুরের অধিনায়ক মাশরাফির বলে আউট হন রনি তালুকদার।

দল যখন ৯০ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে কোণঠাসায় তখনি হাল ধরেন রাজশাহীর দলপতি স্যামি। ১৮ বলে ২৯ রানের কল্যাণে ম্যাচে ফিরে দল। স্যামির পাশাপাশি দলকে ম্যাচে ফেরাতে সাহায্য করেন জেমস ফ্র্যাঙ্কলিন। শেষদিকে ফ্র্যাঙ্কলিনের অপরাজিত ২৭ এবং মিরাজের ঝড়ো ১৫ রানের কল্যাণে ১৫৪ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী।

রংপুরের হয়ে দু’টি করে উইকেট পান মালিঙ্গা এবং অপু এবং একটি করে উইকেট লাভ করেন দলপতি মাশরাফি এবং সোহাগ গাজী। ১৫৫ রানের টার্গেটে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় রংপুর রাইডার্স। রাজশাহীকে প্রথম উইকেট এনে দেন তরুণ অল-রাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ।

দলীয় ১৫ রানের মাথায় ফরহাদ রেজার বলে এলবি ডাব্লিওর  শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরেন জনসন চার্লস (৯)। দুই ওপেনার অ্যাডাম লিথ এবং চার্লসের বিদায়ের পর দলের হয়ে হাল ধরেন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মিঠুন আলী ও শাহরিয়ার নাফীস। দুই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের দারুন ব্যাটিংয়ে ধীরে ধীরে জয়ের দিকে আগাতে থাকে রংপুর।

নাফীস কিছুটা ধীরগতিতে ব্যাটিং করলেও দলের রানের চাকা সচল রাখেন মিঠুন। নাফীস-মিঠুন মিলে তৃতীয় উইকেট ৭৫ রানের জুটি গড়েন। দলীয় ৯০ রানের মাথায় কেসরিক উইলিয়ামসের বলে লুক রাইটের দুর্দান্ত ক্যাচে ৪৬ রান করে সাজঘরে ফিরেন মিঠুন। তবে রংপুরকে আবারো ম্যাচে ফেরান রবি বোপারা এবং নাফীস।

তবে দলীয় ১১৩ রানে নাফীসকে ফেরালে ম্যাচে ফিরে রাজশাহী কিংস। তবে নাফীস বিদায় নিলেও দলকে জয়ের দিকে নিয়ে যেতে থাকেন বোপারা। শেষদিকে ফ্র্যাঙ্কলিনের বলে প্যাটেলের ক্যাচ মিসে খেসারত দিতে হয় দলকে। শেষ পর্যন্ত বোপারার অপরাজিত ৩৯ এবং পেরারার অপরাজিত ২০ রানের কল্যাণে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় রংপুর। রাজশাহীর হয়ে একটি করে উইকেট পান মিরাজ, রেজা, উইলিয়ামস এবং ফ্র্যাঙ্কলিন।

 

স্কোরকার্ডঃ

রাজশাহী কিংস ১৫৪/৮ (২০)

স্যামি ২৯, ফ্র্যাঙ্কলিন ২৭*: অপু ২-২০

রংপুর রাইডার্স ১৫৫/৪ (ওভার ১৮.৪)

মিঠুন ৪৬, বোপারা ৩৯* ঃ ফ্র্যাঙ্কলিন ১-২৬

ফলাফলঃ ৬ উইকেটে জয়ী রংপুর রাইডার্স।

আরো পড়ুনঃ শেষ চার লক্ষ্য চিটাগং অধিনায়ক মিসবাহর

Related Articles

রংপুরকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে খুলনা

মুশফিককে হটিয়ে শীর্ষে রিয়াদ

রংপুরের বিপক্ষে বাড়তি পরিকল্পনা নেই খুলনার

বিপিএল মাতাতে প্রস্তুত মুস্তাফিজ

বিপিএলে আধিপত্য দেশি পেসারদের