SCORE

Trending Now

মিসবাহর কাঠগড়ায় স্বল্প পুঁজি

Share Button

চার ম্যাচে এক জয় আর তিন পরাজয়ে অবস্থান পয়েন্ট টেবিলের তলানির দিকে। চিটাগং ভাইকিংসের এমন ম্রিয়মাণ পারফরমেন্সের অন্যতম কারণ দলটির ব্যাটিং অর্ডারের ব্যর্থতা। ব্যাটিং অর্ডারকে একেবারে অনভিজ্ঞ বলে চালিয়ে দেওয়ার সুযোগ নেই। তবে বেশিরভাগেরই নেই টি-২০ ফরম্যাট অনুযায়ী খেলার সামর্থ্য। অন্তত পরাজিত হওয়া তিনটি ম্যাচে চট্টগ্রাম অঞ্চলের প্রতিনিধিত্বকারী দলটির পারফরমেন্স দেখে এমনই মনে হয়েছে।

মিসবাহর কাঠগড়ায় স্বল্প পুঁজি

ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা বজায় রেখে মঙ্গলবারও চিটাগং ভাইকিংসের ব্যাটিং লাইনআপ ম্যাচ হারিয়েছে দৃষ্টিকটুভাবে। হাতে ছয়-ছয়টি উইকেট রেখেও আগে ব্যাট করে দলের সংগ্রহ ১৩৯, তাও এই টি-২০ ফরম্যাটে… ভাবা যায়! ব্যাট হাতে নামা ছয় ব্যাটসম্যানের তিনজনেরই স্ট্রাইক-রেট একশর নিচে। সব মিলিয়ে ভাইকিংসরা ম্যাচ হেরে গেছে মূলত ম্যাচের প্রথম ইনিংসেই। ম্যাচ শেষে দলটির অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হকও দুষলেন ধীর ব্যাটিং আর স্বল্প পুঁজিকে।

Also Read - হাথুরুসিংহেকে 'ক্রিকেট গিয়ার্স' আনতে বলেছিলেন ইমরুল!

মিসবাহ বলেন, ‘১৩৯ রানের স্বল্প সংগ্রহটিই আমাদের হারের মুখে ঠেলে দিয়েছে। দলীয় সংগ্রহ যদি ১৬০ হতো তাহলে ম্যাচের ফলাফল ভিন্ন হতে পারতো।’

যদিও বাকি থাকা আটটি ম্যাচে ভালো খেলে ইতিবাচক ফল তুলে আনার ব্যাপারে আশাবাদী মিসবাহ। ‘আমাদের হাতে এখনও ৮টি ম্যাচ আছে। আর এই ম্যাচগুলোতে আমাদের অবশ্যই ভালো খেলতে হবে। আমার মনে হয় খুব বেশি নেতিবাচক না ভেবে কী করে ইতিবাচক খেলা যায় সেটাই আমাদের ভাবা উচিত।’– বলেন তিনি।

যে সময়ে বেশি রান আসার কথা, সেই সময়টাতেই ধীর-স্থিরে খেলে রানের গতি কম রাখছেন চিটাগং ভাইকিংসের ব্যাটসম্যানরা। আর এই কারণেই দলের রান হচ্ছে না বেশি। মিসবাহ বলেন, ‘৯-১৫ ওভারে আমরা খেলতে পারছি না। ধারাবাহিকভাবেই এই ওভারগুলোতে মেমেন্টাম হারাচ্ছি। শুধু তাই নয় শেষের দিকেও যেভাবে খেলার কথা সেভাবে খেলতে পারছি না। সেটাই আমাদের ভাবনার কারণ। সেই বিষয়টিকে মাথায় রেখে সামনের ম্যাচগুলোতে কম্বিনেশন পরিবর্তন করবো।

আরও পড়ুনঃ রংপুর শিবিরে যোগ দিলেন কুশল পেরেরা

Related Articles

ব্যর্থতার কারণ জানেন না রনকিও

বড় জয়ে শেষ চারের লড়াইয়ে টিকে রইলো নাসিররা

এক ম্যাচে নাসিরের দুই মাইলফলক স্পর্শ

ভাইকিংসের ব্যর্থতায় দেশিদের দুষলেন নান্নু

খুলনাকে সরিয়ে শীর্ষস্থান কুমিল্লার দখলে