SCORE

Trending Now

ওয়ানডেতেও কিউইদের কাছে হোয়াইটওয়াশ ক্যারিবীয়রা

ক্রাইস্টচার্চে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬৬ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। এতে ৩-০ ব্যবধানে হারানোর পাশাপাশি টেস্টের পর ওয়ানডে সিরিজেও সফরকারীদের হোয়াইটওয়াশ করল স্বাগতিকরা।

NZ win rain-affected ODI to whitewash WI

বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে কমে আসা ২৩ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩১ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। দলের পক্ষে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন রস টেলর। এছাড়া টম লাথামের ব্যাট থেকে আসে ৩৭ রান। এছাড়া কলিন মুনরো ২১ এবং হেনরি নিকোলাস অপরাজিত ১৮ রানের ইনিংস খেলেন।

Also Read - কোহলিকে অতিক্রম করে গেলেন ওয়ার্নার

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে শেল্ডন কটরেল দুটি এবং জেসন হোল্ডার ও নিকিতা মিলার একটি করে উইকেট শিকার করেন।

ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে জয়ের জন্য নির্ধারিত ২৩ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬৬ রান। তবে জবাব দিতে খেলতে নেমে শুরু থেকেই ব্যাটিং বিপর্যয় দেখা দেয় দলটির। দলীয় রান দশ পেরোনোর আগেই দলটি পাঁচজন ব্যাটসম্যানকে হারায়।

এরপর প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। তবে ছিলেন না তার কোনো যোগ্য সঙ্গী, যার ফলে জয়ও থেকেছে অধরা। হোল্ডার ব্যক্তিগত ৩৪ রানে সাজঘরে ফিরলে জয়ের আশা শেষই হয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের। শেষদিকে নিকিতা মিলার ২০ রান করে অপরাজিত থেকেই মাঠ ছাড়েন, তবে ততক্ষণে ৯ উইকেট হারানো দলটির নির্ধারিত ওভারই শেষ। শ্যানন গেব্রিয়েল ১২* এবং রবম্যান পাওয়েল ১১ রান করেন।

কিউইদের পক্ষে ট্রেন্ট বোল্ট ও মিচেল স্যান্টনার তিনটি করে, ম্যাট হেনরি দুটি এবং টড আসলে একটি উইকেট শিকার করেন। ছয়টি চারের সহায়তায় ৫৪ বলে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন স্বাগতিক দল নিউজিল্যান্ডের রস টেলর। সিরিজ সেরা নির্বাচিত হন একই দলের ট্রেন্ট বোল্ট। উল্লেখ্য, আগের দুটি ম্যাচেও জয়লাভ করায় এই জয়ে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করার গৌরব নিয়ে মাঠ ছাড়ে নিউজিল্যান্ড।

আরও পড়ুনঃ নিজস্ব সরঞ্জাম ছাড়াই প্রথম ম্যাচ খেলেছিলেন তাঁরা!

Related Articles

টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের সাফল্যের কারণ আইপিএল!

বৃষ্টিতে পুড়ল স্কটল্যান্ডের কপাল, বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

‘টাইগার— তুমি আমার জন্য সৌভাগ্যের প্রতীক!’

চার মাসে ‘এ’ দলের তিনটি সিরিজ

আফগানিস্তানের কাছেও ধরাশায়ী উইন্ডিজরা