SCORE

Trending Now

কোয়ালিফায়ারের বিতর্ক নিয়ে বিসিবির ব্যাখ্যা

Share Button

আকাশে মেঘের ঘনঘটা শুরু দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের একদিন আগেই। সাগরে নিম্নচাপ; আবহাওয়া অফিস জানাচ্ছে- বৃষ্টি হবে টানা তিনদিন। এতে বিঘ্ন হতে পারে বিপিএলের ফাইনালে ওঠার জন্য কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্সের মধ্যকার লড়াইও।

কোয়ালিফায়ারের বিতর্ক নিয়ে বিসিবির ব্যাখ্যা
বিপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্সের মধ্যকার ম্যাচের দৃশ্য। এই ম্যাচ নিয়েই ক্রিকেট অঙ্গনে চলছে জোর বিতর্ক। ছবিঃ বিডিক্রিকটাইম

ঐ ম্যাচ মাঠে গড়ানোর আগে থেকেই সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চাউর হয়- বৃষ্টির কারণে খেলা সম্পন্ন না হলে বিপিএলের বাই লজ অনুযায়ী ফাইনালে উত্থিত হবে দুই দলের মধ্যে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ দল, অর্থাৎ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

সবার ধারণাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে নির্ধারিত সময়েই শুরু হয় ম্যাচ। তবে বৃষ্টির জয়জয়কার ঘোষণা করে ক্রিকেটদেবতা আবারও ভিজিয়ে দিলেন মিরপুরকে। সেই সাথে শুরু হল বিতর্ক। ফের ম্যাচ শুরুর জন্য অফিশিয়ালরা সর্বশেষ যে নির্ধারিত সময় বেঁধে দিয়েছিলেন, তার আগেই থেমে যায় বৃষ্টি। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তখন ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ৫ ওভার। তবে মাঠ প্রস্তুতি ও খেলোয়াড়দের সলাপরামর্শে সেই সময়েরও অনেকটা কেটে যায়। ম্যাচ সম্পন্ন করতে তখন উপায় ছিল একটাই- সুপার ওভার।

Also Read - চ্যাম্পিয়নশিপ ধরে রাখার বারুদ আছে ঢাকার!

তবে সুপার ওভারে ম্যাচ না গিয়ে পরেরদিন অসমাপ্ত অংশ সম্পন্নের কথা জানানো হয়। এরপর বিভিন্ন গণমাধ্যমে দাবি করা হয়, টুর্নামেন্টের আইন ভেঙেছে খোদ বিপিএল কর্তৃপক্ষ; যা রংপুরের পক্ষে গেলেও এসেছে কুমিল্লার বিপক্ষে।

তবে এ নিয়ে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে বিসিবি। সোমবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সূচিতে রিজার্ভ ডে না থাকা সত্ত্বেও একদিন পিছিয়ে ম্যাচ সম্পন্ন করাতে কোনো আইন ভঙ্গ হয়নি। সেই সাথে নিজেদের দাবির পক্ষে সুস্পষ্ট ব্যাখ্যাও দিয়েছে দেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

এতে বলা হয়, পঞ্চম বিপিএলের ম্যাচ আয়োজনের শর্তের ধারা ১৬.১২ অনুযায়ী- এলিমিনেটর, কোয়ালিফায়ার-১ অথবা কোয়ালিফায়ার-২ এর কোনো ম্যাচ টাই হলে অথবা কোনো ফলাফল না আসলে দুটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা যেতে পারে- ১. সুপার ওভারের মাধ্যমে জয়ী দল নির্বাচন করা, ২. নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সুপার ওভার আয়োজন করা না গেলে অথবা সুপার ওভার টাই হলে, যে দল পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে ছিল তাদেরকেই জয়ী বলে বিবেচনা করা হবে।

আবার বিপিএল, বিসিবি এবং আইসিসির টি-২০ ম্যাচ আয়োজনের শর্তের ১৬.১.৩ নম্বর ধারা অনুযায়ী, কোনো ম্যাচে উভয় দল অন্তত ৫ ওভার করে ব্যাটিং করতে না পারলে ম্যাচটি ফলাফলহীন বলে গণ্য হবে। কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্সের মধ্যকার ম্যাচে রংপুর ব্যাট করেছিল ৭ ওভার, অন্যদিকে কুমিল্লা ব্যাট হাতে ক্রিজে নামতেই পারেনি। বাই লজ অনুযায়ী ৩০ মিনিট সময় বর্ধিত করা হলেও তখন কুমিল্লার কমপক্ষে ৫ ওভার ব্যাটিং করার জন্য যথেষ্ট সময় ছিল না। ফলে ম্যাচ অফিশিয়ালরা দুই দলের টিম ম্যানেজমেন্টকেই ম্যাচ সুপার ওভারে গড়ানোর ব্যাপারে অবহিত করেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সুপার ওভার খেলতে কোনো দল অসম্মতি জানালে প্রতিপক্ষ দলকে বিজয়ী বলে ঘোষণা করা হবে। তবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে দুই দলই সুপার ওভার খেলতে অসম্মতি জানায়। এতে ম্যাচের ফল নির্ধারণে আবারও দেখা দেয় বিপত্তি। পরবর্তীতে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের পক্ষে ম্যাচের বাকি অংশ পরেরদিন সম্পন্ন করার প্রস্তাব দিলে দুই দলই এতে রাজি হয়। আর এ কারণেই ১০ ডিসেম্বরের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচ সম্পন্ন হয়েছে ১১ ডিসেম্বর, ফাইনালের (১২ ডিসেম্বর) ঠিক আগেরদিন।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে হারিয়ে রংপুর রাইডার্স ফাইনালে ওঠায় কুমিল্লার সমর্থকদের কাছে এই ম্যাচ নিয়ে বিতর্ক রূপ নিয়েছে ক্ষোভে। তবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের প্রেস বিজ্ঞপ্তির পর এটা পরিষ্কার- বিসিবির সিদ্ধান্ত এসেছে সঠিক পথেই; এতে অবিচার হয়নি কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের প্রতি, কিংবা সুবিধা পায়নি রংপুর রাইডার্সও।

আরও পড়ুনঃ ‘অফ দ্যা ফিল্ড ক্যাপ্টেন্সি খুবই গুরুত্বপূর্ণ’

Related Articles

ত্রুটিই ধরা পড়ল আল-আমিনের বোলিংয়ে

তামিমের শুনানি আজ

টেস্ট নিয়ে তাড়াহুড়া নেই সাইফউদ্দিনের

আমরাই সেরা দল ছিলাম: তামিম

ফাইনালে রংপুর রাইডার্স

Leave A Comment