সাজ্জাদ-রানার বোলিং নৈপুণ্যে লিড পেল চট্টগ্রাম

Share Button

প্রথম ইনিংসে চট্টগ্রাম বিভাগ অলআউট হয়েছিল মাত্র ২১৫ রান করে। সিলেট বিভাগের সামনে ছিল বড় লিড নেওয়ার সুযোগ। কিন্তু তা হতে দেননি চট্টগ্রাম বিভাগের ইফতেখার সাজ্জাদ। পাঁচ উইকেট নিয়ে চট্টগ্রামকে ম্যাচের চালকের আসনে বসিয়েছেন তিনি। স্বল্প পুঁজি নিয়েও চট্টগ্রাম বিভাগ লিড পেয়েছে ৭৮ রানের। তিন উইকেট নিয়ে তাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন মেহেদি হাসান রানা।

প্রথম দিনেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছিল সিলেট বিভাগ। ৩ উইকেট হারিয়ে করেছিল ৫৪ রান। ডানহাতি অফস্পিনার ইফতেখার সাজ্জাদ পেয়েছিলেন এক উইকেট। দ্বিতীয় দিনে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি সিলেট বিভাগ। ধস নামিয়েছেন ইফতেখার। ইফতেখারের ঘূর্ণির তোপে পড়ে দ্বিতীয় দিন ৭ উইকেটের বিনিময়ে সিলেট করেছে মাত্র ৮৩ রান।

দলীয় ৭৪ রানের মাথায় ওপেনার সায়েম আলমকে হারায় সিলেট। সাইফউদ্দিনের বলে ২৬ রান করে আউট হন সায়েম। রাজিন সালেহকে নিয়ে শাহানুর রহমান যোগ করেন মাত্র ২৪ রান। কোনো জুটিকেই দীর্ঘ হতে দিচ্ছিল না চট্টগ্রাম বিভাগের বোলাররা। ১৪ রান করে বাঁহাতি পেসার মেহেদি হাসান রানার বলে উইকেট কিপারকে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান শাহানুর। নিজের পরের ওভারে জাকের আলি অনিককে ফেরান রানা। দুই ওভারে দুই উইকেট নিয়ে সিলেট বিভাগকে গুঁড়িয়ে দেন তিনি।

Also Read - নাসিরের শতকে লড়ছে রংপুর

এরপর বাকি কাজটা করেন ইফতেখার সাজ্জাদ। প্রতিরোধ গড়ে তোলা রাজিন সালেহকে পরিণত করেন দ্বিতীয় শিকারে। আবুল হাসান রাজু ৩৩ বলে ৫ চারে ২৭ রান করেন। আবুল হাসান ও এনামুল হক জুনিয়র কে টানা দুই বলে ফেরান ইফতেখার। এক ওভার পর আবু জায়েদকে ফিরিয়ে সিলেটের ইনিংসের সমাপ্তি টানেন তিনি। পূর্ণ করেন নিজের পাঁচ উইকেট।

বড় লিড নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ শুরু করে চট্টগ্রাম। দুই ওপেনারই দেখা পান অর্ধশতকের। ওপেনিং জুটিতে রান সংগ্রহ করেন ৯২। ৫৪ রান করে আবুল হাসানের বলে আউট হন ওপেনার সাদিকুর। প্রথম উইকেটের পতনের পর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট  হারাতে থাকে চট্টগ্রাম বিভাগ। ১১৫ রানের মাথায় শাহানুরের বলে আউট হন মুমিনুল (২০)।

তাসামুলকে সাথে নিয়ে ওপেনার জসিমউদ্দিন যোগ করেন ৪৪ রান। তাদের জুটি ভাঙেন এনামুল হক জুনিয়র। ৫৬ রান করেন জসিমউদ্দিন। পরের ওভারে তাসামুলকে বোল্ড করেন এবাদত হোসেন। ২০ রান করেন তাসামুল। তাসামুলকে ফেরানোর পরের বলে সাজ্জাদ হককে এলবিডব্লিউ করেন এবাদত। এবাদতের বোলিংয়ে ম্যাচে ফিরে আসে সিলেট। চাপে পরে যায় চট্টগ্রাম। সেই চাপ থেকে দলকে উদ্ধারের প্রয়াসে ইয়াসির আলি ও সাইদ সরকার গড়েছেন ২৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

চট্টগ্রাম ১ম ইনিংস: ২১৫

সিলেট ১ম ইনিংস:  ১৩৭, ৪৯.৪ ওভার
আবুল হাসান ২৭, সায়েম ২৬, রাজিন ২৬
সাজ্জাদ ৫/৪৩, রানা ৩/৩০

চট্টগ্রাম ২য় ইনিংস:  ১৮৯/৫, ৫৪.৪ ওভার
জসিমউদ্দিন ৫৬, সাদিকুর ৫৪, মুমিনুল ২০, তাসামুল ২০
এবাদত ২/৪২, শাহানুর ১/৪৩

আরও পড়ুনঃ নাসিরের শতকে লড়ছে রংপুর

Leave A Comment