SCORE

সর্বশেষ

দক্ষিণ আফ্রিকায় ‘ভারতের উইকেট’!

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ভারতের পারফরম্যান্স সবসময়ই খারাপ। অতিতের মতো ২০১৮ সালে এসেও একই অবস্থা। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে ৪ দিনে হেরেছে ভারত, এর মাঝে বৃষ্টির কল্যাণে একদিন বল মাঠেই গড়ায় নি। এদিকে সেঞ্চুরিয়নে দ্বিতীয় টেস্টে দেখা মিললো অন্য চিত্র। সচরাচর দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেটের মতো নয় এটি। দাবিটা দক্ষিণ আফ্রিকার পেসার মরনে মরকেলের।

সেঞ্চুরিয়নে প্রথম ইনিংসে ৩৩৫ রানে গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা, অন্যদিকে প্রথম ইনিংসে ভারত করে ৩০৭ রান। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি একাই প্রথম ইনিংসে করেছেন ১৫৩ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে সবচেয়ে বেশি উইকেট নিয়েছেন মরনে মরকেল। ৪ উইকেট পেতে এই পেসারকে ২২ ওভারের বেশি বল করতে হয়েছে। উইকেটকে স্বাভাবিক সেঞ্চুরিয়নের উইকেট মানতে নারাজ এই পেসার। উইকেটের আচরণ ভারতের ঘরের মাঠের উইকেটের মতো!

Also Read - নিউজিল্যান্ড ৪, পাকিস্তান ০

মরকেল উইকেট প্রসঙ্গে বলেন,  ‘সারা জীবন এখানেই ক্রিকেট খেলেছি, কিন্তু সুপারস্পোর্ট পার্কের এই উইকেটের মতো উইকেট আগে কখনো দেখিনি। এখানে সত্যিই বল করা কঠিন হয়েছে যাচ্ছে। গরম আর কন্ডিশন মিলিয়ে আমার জীবনের সবচেয়ে কঠিন স্পেলগুলো এখানেই করলাম। আগে কখনো শোনা যায়নি যে এখানে প্রথম দিন স্পিনাররা ভালো করেছে। আমরা তো ইনিংসের শুরুটাই করলাম স্পিনার দিয়ে, লাঞ্চের আগের ওই ওভারটায়। উইকেট অনেকটা ভারতীয় উপমহাদেশের মতো। এখানে রান করা কঠিন, ব্যাটসম্যানকে আউট করাও কঠিন। দক্ষিণ আফ্রিকায় আমরা যে রকমটা চাই, এটা অবশ্যই সে রকম নয়।’

দক্ষিণ আফ্রিকার উইকেট সাধারণত পেসারদের জন্য স্বর্গ হয়। কিন্তু এই উইকেট যেন ন্যারা। ব্যাটসমান মানিয়ে নিলে বোলারদের জন্য আউট করা অনেক কষ্টকর। বিরাট কোহলির ইনিংস নিয়ে এমন আক্ষেপই ঝড়লো মরকেলের কথায়, ‘আমাদের হাতে কিছু অস্ত্র ছিল। কিন্তু উইকেট যদি ধীর হয়, তাতে বল করাটা কঠিন। ওর মাপের একজন ব্যাটসম্যান যদি মানিয়ে নেওয়ার মতো সময় পায়, তাহলে সমস্যা।’

[আরও পড়ুনঃ রুবেলের টার্গেট ‘ত্রিপল সেঞ্চুরি’]

Related Articles

ডি ভিলিয়ার্সের অবসর নিয়ে আইসিসির বিবৃতি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন ডি ভিলিয়ার্স

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ আফ্রিকানদের

কোহলির চোখে ভিলিয়ার্স ‘স্পাইডারম্যান’!

ব্যানক্রফটের পক্ষে ১৪ ভোট আর বিপক্ষে ২ ভোট!