SCORE

Trending Now

মাশরাফিকেই কৃতিত্ব দিলেন মিঠুন

Share Button

রংপুর রাইডার্স সর্বশেষ বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, এই ব্যাপারটি কিছু সময়ের জন্য ভুলে থাকা যাক। সিলেটে জয় দিয়ে আসর শুরু। এরপর টানা হার। হারতে হারতে শঙ্কা ছুঁল পয়েন্ট টেবিলের  তলানি। ঐ সময়টায় ক’জনই বা ভেবেছিলেন, রংপুর রাইডার্সের হাতেই উঠবে পঞ্চম বিপিএলের ট্রফি?

মিঠুনকেই কৃতিত্ব দিলেন মাশরাফি
মাশরাফি বিন মুর্তজার সাথে মোহাম্মদ মিঠুন। ছবিঃ বিডিক্রিকটাইম

রংপুরের ট্রফি জেতার পেছনে যে কয়জন ক্রিকেটারের মুখ্য অবদান ছিল, তাদেরই একজন মোহাম্মদ মিঠুন। আসরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বাংলাদেশি রান সংগ্রাহক বিপিএলে দলকে চ্যাম্পিয়ন করার পুরস্কার হিসেবে জায়গা পেয়েছেন আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজের জাতীয় দলে।

২৭ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার সোমবার সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার কৃতিত্বটা দেন ওয়ানডে দলের অধিনায়ক ও রংপুরের নেতৃত্ব দেওয়া নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজাকে। মিঠুনের মতে, বিপিএলে তার ভালো পারফরমেন্সই তাকে জায়গা করে দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় দলে।

Also Read - বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের টিকিট মূল্য নির্ধারণ

মিঠুন বলেন, ‘আমার তো মনে হয়, আমার বিপিএলের পারফরম্যান্স পুরোটাই সাহায্য করেছে। কারণ, ওখানে আমার অবদান ছিল। পাশাপাশি আমাদের দল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। আমি ভাগ্যবান যে, আমার দলের অধিনায়ক যিনি ছিলেন তিনি বাংলাদেশ দলেরও অধিনায়ক।’

মাশরাফি আস্থা রেখেছিলেন বলেই মিঠুন সাফল্য পেয়েছেন জানিয়ে তার ভাষ্য, ‘মাশরাফি ভাই আমার উপর আস্থা রেখেছেন। উনি আস্থা রেখেছেন বলেই আমি আজ এখানে। উনি আস্থা না রাখলে এখানে থাকতে পারতাম না।’

বিপিএলের শুরুতে রংপুর রাইডার্স যখন ধুঁকছিল, তখন সতীর্থরা আস্থা রেখেছিলেন মিঠুনের উপরই। আর এই ব্যাপারটি আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে তার। মিঠুন বলেন, ‘আমাদের দল যখন শুরুতে ব্যাটিংয়ে সংগ্রাম করছিল তখন এমন ছিল যে, আমিই দলের মূল ব্যাটসম্যান। আমাকে সবাই উৎসাহিত করত যে, তুমি ভালো খেললে ম্যাচ জিতব, না হলে জিতব না। এ জিনিসটা অনেক বড় পাওয়া এবং এ জিনিসটা ভালো খেলার জন্য উৎসাহ, আত্মবিশ্বাস অনেক বাড়ায়।’

আরও পড়ুনঃ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদেই জাতীয় দলে ডাক পেলেন শাহজাদ

Related Articles

‘মুস্তাফিজ বিশ্বমানের বোলার’

২ উইকেটের অপেক্ষায় রুবেল

সমালোচনার জবাব দিলেন সুজন

আবহাওয়ার দোলাচলে সন্দেহে আছেন মাশরাফিও!

সাকিব তিনে, রিয়াদ পাঁচে!

Leave A Comment