SCORE

সর্বশেষ

মুমিনুলে মুগ্ধ তামিম

চট্টগ্রাম টেস্টে ছড়ি ঘোরাবেন স্পিনাররা- এমন কথা শুনতে শুনতে ব্যাপারটি রীতিমতো মুখস্থ হয়ে গেছে ক্রিকেট অঙ্গনে। কিন্তু ম্যাচ ডে আসতেই ভিন্ন চিত্র। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ম্যাচের প্রথম দিন ব্যাট হাতে লঙ্কান বোলারদের উপর চড়াও ছিল বাংলাদেশ। চারেরও বেশি রানরেট নিয়ে টাইগাররা দিন শেষ করেছে স্বস্তি নিয়ে।

বাংলাদেশের এমন পারফরমেন্সের পেছনে বড় অবদান ছিল মুমিনুল হকের। তামিম ইকবালের বিদায়ের পর ওয়ানডাউনে নেমে ইমরুল কায়েসের সাথে ছোট কিন্তু কার্যকরী এবং পরে মুশফিকুর রহিমের সাথে বড় এক পার্টনারশিপ গড়ে দিনটি করে দিয়েছেন বাংলাদেশের। মুশফিক ও তার পর লিটন দাস সাজঘরে ফিরে গেলেও ১৭৫ রান নিয়ে এখনও অপরাজিতই আছেন মুমিনুল।

Also Read - প্রথম দিনে বাংলাদেশের যত অর্জন

দিনের খেলা শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে তামিম মুমিনুলকে ভাসালেন প্রশংসার সাগরে। তামিম বলেন, ‘মুমিনুলের ব্যাটিং ছিল অসাধারণ। প্রথমে আক্রমণাত্মক ছিল। যখন সে সেঞ্চুরি করে তখন তার স্ট্রাইকরেট ১০৩! আমরা জানি এটা প্রথম দিনে ব্যাট করার জন্য দারুণ একটি উইকেট। আপনি যখন বেশি ভালো উইকেটে ব্যাট করেন, অনেক সময় অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস চলে আসে এবং ঝুঁকিপূর্ণ শট খেলে আউট হয়ে যান।’

তামিম বলেন, ‘মুমিনুল ঐ জিনিসটা করেনি। ওর একটা বড় পার্টনারশিপ করা আমাদের জন্য খুব প্রয়োজন ছিল। মুশফিক এবং মুমিনুল দুজনই খুব দায়িত্ব নিয়ে ব্যাট করেছে। রান নেওয়ার মতো বলগুলোতে তারা বেশ ভালো খেলেছে। মুমিনুল নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ দিয়েছে।’

এখন পর্যন্ত মুমিনুলের ইনিংসের অর্ধেক অংশই ছিল ওয়ানডে মেজাজের খেলা। অথচ এই মুমিনুলই ‘টেস্ট খেলোয়াড়’ আখ্যায় জায়গা পান না ওয়ানডে দলে! মুমিনুলের চওড়া ব্যাট ওয়ানডেতেও তার সামর্থ্য নিয়ে কোনো বার্তা ছিল কি না, এমন প্রসঙ্গে তামিম বলেন, ‘সে নিজের সামর্থ্যের প্রমাণ করার মতো পারফরমেন্স করেছে। আমার কাছে ব্যাপারটা দেখে ভালো লেগেছে। আমি বুঝেছি, সে কি বার্তা দিতে চেয়েছে।’

আরও পড়ুনঃ তামিমের চোখে ‘চমৎকার দিন’

Related Articles

চট্টগ্রাম টেস্টে সেদিন শতক হয়নি শচীনের!

‘বিশ্বাস রাখলেই ভালো ফল আসবে’

সেশন বাই সেশন খেলেই মুমিনুলের চাপ জয়

‘বাংলাদেশ নেতিবাচক মানসিকতায় চলে গিয়েছিল’

২০০ রানের লিড নিয়ে ৭১৩-তে থামল শ্রীলঙ্কা