SCORE

সর্বশেষ

বোলিংয়ের পাশাপাশি দুশ্চিন্তার নাম স্লিপ ফিল্ডিং

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশকে বেশ ভোগাচ্ছে শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং। অবশ্য নিজেদের এই ভোগান্তির পেছনে বাংলাদেশের দায়ও কম নয়। ম্যাড়মেড়ে বোলিংয়ের পাশাপাশি মিস ফিল্ডিং আর ক্যাচ মিসের মহড়া বাংলাদেশকে ম্যাচে ঠেলে দিয়েছে ব্যাকফুটে।

বোলিংয়ের পাশাপাশি দুশ্চিন্তার নাম স্লিপ ফিল্ডিং

বাংলাদেশ দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনের মতে, জুটি বেঁধে কেউই ভালো বল করতে না পারায় আসছে না সফলতা। তিনি বলেন, ‘কিছু সময়ে আমরা অবশ্যই ভালো বোলিং করেছি। তবে টেস্ট ম্যচে জুটি বেঁধে বোলিং করা গুরুত্বপূর্ণ। আমার মনে হয় না বেশিরভাগ সময় আমরা ভালো বোলিং করেছি।’

Also Read - লাঞ্চ পর্যন্ত ব্যাট করতে চায় শ্রীলঙ্কা

একদিক থেকে আক্রমণ এবং অন্যদিক থেকে রক্ষণাত্মক খেলার পরিকল্পনা ছিল বাংলাদেশের। তবে মাঠের তার প্রতিফলন ঘটাতে সক্ষম হননি বোলাররা। সুজন বলেন, ‘জুটি বেঁধে বোলিং ভালো ছিল না। পরিকল্পনা ছিল একদিক থেকে আমরা আক্রমণ করব, আরেকদিক থেকে রক্ষণাত্মক থাকব, সেটা হয়নি। বোলিং জুটি ভালো হয়নি। আমরা খুব ভালো করিনি আসলে। খুব একটা সন্তুষ্ট নই আমি। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য খুব ভালো। তার পরও আমরা আরও ভালো করতে পারতাম বোলিংয়ে।’

অন্যদিকে দুশ্চিন্তার আরেক কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে স্লিপ ফিল্ডিং। এই পজিশনের জন্য ইমরুল কায়েস ছাড়া বলার মতো যোগ্য কেউই নেই বাংলাদেশ দলে। ইমরুলের পাশে দাঁড়িয়ে দায়িত্ব পালন করা মেহেদী হাসান মিরাজই এই এক ইনিংসেই হাতছাড়া করেছেন তিনটি ক্যাচ, আর যার ক্যাচ হাতছাড়া করেছেন সেই কুশল পেরেরা শেষমেশ থেমেছেন ১৯৬ রানে।

স্লিপ ফিল্ডিং নিয়ে হতাশা ঝরল সুজনের কণ্ঠেও। তার ভাষ্য, ‘যে দুজন (ইমরুল ও মিরাজ) দাঁড়াচ্ছে, ওদের অনুশীলনও করানো হয়েছে। বেশি করে অনুশীলন করানো হয়েছে। এই দলে অতো স্লিপ ফিল্ডার নেই, এই দুই জনই আছে আসলে। দুজনই কিন্তু অনেক কাজ করেছে। হয়তো সানজামুলকে কিছু সময় আমরা তৃতীয় স্লিপে রেখেছিলাম। বিশেষজ্ঞ স্লিপ ফিল্ডার থাকা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। প্রত্যেকটা টেস্ট দলেই আছে। কাজ করা যেতেই পারে।’

আরও পড়ুনঃ যে কারণে জায়গা পাননি রাজ্জাক

Related Articles

এবার দলের সঙ্গে থাকছেন না সুজন

মানসিকভাবে পিছিয়ে বাংলাদেশ!

মুস্তাফিজকে কারণ দর্শানোর নোটিশ

‘র‍্যাঙ্কিং নয়, সিরিজ জয় নিয়েই ভাবনা’

বিসিবিকে ধন্যবাদ দিলেন মাশরাফি