‘আমি তামিমের বড় ভক্ত!’

অ্যালান উইলকিন্স- খ্যাতিমান ধারাভাষ্যকার। একটা সময় ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেছেন নিজের দেশ ওয়েলসে। খেলোয়াড়ি জীবন শেষে শুরু করেছেন ধারাভাষ্য, তবু ছাড়েননি ক্রিকেটের আঙিনা।

তামিম-সাব্বিরের কাছেও হারলেন মুস্তাফিজ
শনিবার পেশোয়ারের জয়ে বড় অবদান রেখেছেন তামিম। ছবি: ইন্টারনেট

সেই উইলকিন্স চলমান পাকিস্তান সুপার লিগ- পিএসএলেও কাজ করছেন ধারাভাষ্যকার হিসেবে। শনিবার পিএসএলের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে লাহোর কালান্দার্সের মুখোমুখি হয়েছিল পেশোয়ার জালমি।

ঐ ম্যাচে দারুণ পারফরমেন্স করেন বাংলাদেশি ওপেনার তামিম ইকবাল। তার সাথে দলের জয়ে বড় অবদান রাখেন ব্যাটিং উদ্বোধনে তামিমের সঙ্গী কামরান আকমল। এই দুজনের ব্যাটিং দৃঢ়তায় দল পায় ১০ উইকেটের বিশাল জয়।

Also Read - আশরাফুল-তাসামুলের শতকে কলাবাগানের দ্বিতীয় জয়

ম্যাচ চলাকালে তামিমের ইনিংস দেখে এদিন প্রশংসার ডালি খুলতে বাধ্য হন ধারাভাষ্যকারেরা। অন্য ভাষ্যকারেরা যখন তামিম বন্দনায় মশগুল, একটা পর্যায়ে উইলকিন্স বলেই ওঠেন- ‘আমি তামিম ইকবালের বড় একজন ভক্ত!’

খ্যাতিমান একজন ধারাভাষ্যকার তামিমের ভক্ত হওয়া অবশ্য অস্বাভাবিক কিছু নয়। বিগত কয়েক বছর ধরেই চওড়া বাঁহাতি বাংলাদেশি ওপেনারের ব্যাট। টেস্ট, ওয়ানডে, টি-২০- সব ফরম্যাটেই তামিম আছেন দুর্দান্ত ফর্মে। আর এই কারণে পিএসএলের মতো ঘরোয়া টি-২০ লিগগুলোতেও তামিমের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী।

উল্লেখ্য, ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দৃষ্টিকটু ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে লাহোর কালান্দার্স। নির্ধারিত ২০ ওভার খেলা দূরে থাক, মাত্র ১৭.২ ওভার ব্যাট করেই দলটি গুটিয়ে যায় ১০০ রানে। যদিও ফখর জামান ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ব্যাটে ৪২ রানের উদ্বোধনী জুটিতে ভালো শুরুই পেয়েছিল দলটি।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে কোনো উইকেট না হারিয়েই পেশোয়ার জালমি পৌঁছে যায় কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে। দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও কামরান আকমলের দৃঢ়চেতা ব্যাটিংয়ে ৩৮ বল ও সবকটি উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় মোহাম্মদ হাফিজের নেতৃত্বাধীন দল। তামিম চারটি চারের সহায়তায় ৩৫ বলে ৩৭ এবং কামরান সাত চার ও দুই ছক্কার সহায়তায় ৪৭ বলে ৫৭ রান করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

আরও পড়ুনঃ দলকে সামর্থ্যের ১২০ ভাগ দিবেন তাসকিন