SCORE

সর্বশেষ

কাটার দিয়েই মাশরাফির কীর্তি

মঙ্গলবার ইতিহাসের সপ্তম বোলার হিসেবে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে টানা চার বলে চার উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েছেন বাংলাদেশের কিংবদন্তীতুল্য ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা। ডিপিএলে এমন কীর্তি গড়া ম্যাচ শেষে তিনি মুখোমুখি হন সাংবাদিকদের।

মাশরাফির আগুন ঝরা বোলিংয়ের পরও হারল আবাহনী

এ সময় মাশরাফি জানান, তিনি কাটার দিয়েই কুপোকাত করেছিলেন ঐ চার উইকেটে পতন ঘটা ব্যাটসম্যানদের।

Also Read - নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কার শুভসূচনা

মাশরাফি বলেন, ‘প্রতিপক্ষ যেই থাকুক আমি সবসময় আমার শক্তির জায়গা থেকেই বোলিং করি। আমি কাটারই ছুড়ছিলাম। দুই-একটা হয়তো ক্রস সিমে করেছি। ইয়র্কার করার চেষ্টা করিনি। রাজের বিপক্ষে ইয়র্কার ছুড়তে গিয়ে চার খেয়েছি। তাই আর ওই পথে হাঁটিনি। আমি মিড অফ ওপরে রেখে কাটার মেরে বোলিং করেছি।’

মাশরাফি জানান, পুরনো বলে কাটারেই সবচেয়ে ভালো করেন তিনি। তার ভাষ্য, ‘পুরনো বলে আমার আসল শক্তির জায়গা হলো কাটার। আমি আজকেও সেটা ট্রাই করেছি। শেষের চারটা উইকেটই কাটারে নিয়েছি। বল ড্রাইভিং জোনের একটু পেছনে ফেলার চেষ্টা ছিল। শেষ কথাটি উহ্য থেকে গেছে। তাহলো, তারা মারতে গিয়েও মাঝব্যাটে আনতে পারেনি।’

উইকেটে কোনো সেট ব্যাটসম্যান না থাকায় আবাহনীর বিপক্ষে জিততে পারেনি বলে ধারণা মাশরাফির। সেই সাথে এও জানালেন, কাউকে রান নিতে না দেওয়ারও দৃঢ় পরিকল্পনা ছিল তার, ‘সেট ব্যাটসম্যান থাকলে জিতে যেতে পারতো অগ্রণী ব্যাংক। শেষ ওভারে ১৩ রান লাগতো। একটা শট বেরিয়ে গেলেই তো চার হয়ে যেত। রাজ্জাক ছিল জানতাম ব্যাটে লাগলে বেরিয়ে যাবে। ওর ব্যাটেও বল লাগছিল।’

অনুভূতি সম্পর্কে মাশরাফি বলেন, ‘হ্যাটট্রিকতো করেছি। সত্যি কথা বলতে ওই অনুভূতিটা নেই। ম্যাচ জিততে পেরেছি সেটাই ভালো লাগছে। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। এমনিতেই আমাদের দলে পেস বোলিংয়ে কিছুটা ঘাটতি আছে। গত ম্যাচটা আমরা এই কারণেই হেরেছিলাম। আজকে আমরা বোলিংয়ের জন্য হেরে যাচ্ছিলাম। এবার জিততে পেরে ভালো লাগছে।’

আরও পড়ুনঃ সবাইকে পাশে চাইলেন মাশরাফি

Related Articles

পারিশ্রমিক না পেয়ে বিসিবির শরণাপন্ন কলাবাগানের ক্রিকেটাররা

‘লাইফ স্টাইলে পরিবর্তন এনে ভুল শুধরাতে চাই’

কলাবাগানের তিন ক্রিকেটারকে পারিশ্রমিক না দেয়ার অভিযোগ

অসুস্থ রুবেল, দোয়া চাইলেন সবার কাছে

বোলিং অ্যাকশন নিয়ে বাড়ছে সচেতনতা