SCORE

সর্বশেষ

পিএসএলের ফাইনালেও নিশ্চিত নন তামিম

নিদাহাস ট্রফি শেষ করেই তামিম ইকবাল উড়াল দিয়েছিলেন লাহোরে, পেশোয়ার জালমির হয়ে পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) অংশগ্রহণের উদ্দেশে। লাহোর পৌঁছে দলের হয়ে প্রথম এলিমিনেটর ম্যাচে ব্যাটিং উদ্বোধনও করেছিলেন তিনি। ঐ ম্যাচে ২৭ রান করা তামিমের দলের বিপক্ষে পরাজিত হয় মাহমুদউল্লাহ্‌ রিয়াদের দল কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটর্স।

হার দিয়ে পিএসএল শুরু তামিমের পেশোয়ারের

পেশোয়ারের ১ রানের জয়ের পেছনে বড় অবদান ছিল তামিমের ২৭ রানের ইনিংসটিরও। আর তাই দলটির ফাইনাল নিশ্চিতকরণের ম্যাচে তামিমকে একাদশে না রাখার কোনো যুক্তিই ছিল না। দ্বিতীয় এলিমিনেটর ম্যাচে তামিমকে একাদশে না দেখে তাই ভ্রু কুঁচকেছিলেন অনেকে। তবে পরে জানা যায়, ইনজুরির শিকার হওয়ায়ই ঐ ম্যাচে খেলেননি তামিম।

Also Read - চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি নিয়ে আইসিসির সঙ্গে দ্বন্দ্ব ভারতের

শেষমেশ তামিমের দল পৌঁছেছে ফাইনালে। ২৫ মার্চ আয়োজক দেশ পাকিস্তানেই অনুষ্ঠিত হবে পেশোয়ার জালমি ও ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের মধ্যকার ফাইনাল ম্যাচ। এর আগে শোনা যাচ্ছিল, দ্বিতীয় এলিমিনেটর ম্যাচে মাঠে না নামলেও ঐ ম্যাচে দেখা যাবে তামিমকে। তবে এই বিষয়টি এখনও রয়েছে অনিশ্চয়তার দোলাচলে। তামিম নিজেই জানিয়েছেন, এখনও ফাইনালে খেলা নিশ্চিত নয় তার।

দৈনিক প্রথম আলোকে তামিম ইকবাল বলেন, ‘নিদাহাস ট্রফিতে অনেক কষ্ট করে ব্যথা নিয়ে খেলেছি। তবু (নিদাহাস ট্রফির) ফাইনালে ফিল্ডিং করতে পারিনি। পিএসএলে যে ম্যাচটা (নিদাহাস ট্রফির পর) খেলেছি, ফিল্ডিং করতে পারিনি তাতেও। (পিএসএলের) ফাইনাল খেলব কি না নির্ভর করছে এখানে ডাক্তাররা কী বলেন তার ওপর।’

তামিমকে তাই এখন অপেক্ষা করতে হচ্ছে ডাক্তারদের নির্দেশনার উপর। চিকিৎসার জন্য ব্যাংককে অবস্থান করা তামিমের ইতিবাচক রিপোর্টের অপেক্ষায় আছে পেশোয়ার জালমিও। আসরে দলটির শুরুর ম্যাচগুলোতে জয় এনে দেওয়ায় তামিমের ছিল গুরুত্বপূর্ণ অবদান। শেষ ম্যাচেও তামিমকে নিয়ে মাঠে নেমে শিরোপার স্বাদ গ্রহণ করতে চাইবে দলটি। তবে তার আগে সুস্থ হয়ে উঠতে হবে তামিমকে, যার আবার সম্ভাব্যতা নেই পুরোপুরি!

আরও পড়ুনঃ স্ত্রীর অভিযোগ মিথ্যা, চুক্তিতে ফিরেছেন শামি

Related Articles

রশিদকে নিয়ে ভাবতে মানা তামিমের

“ফিটনেসের অবস্থা আগের চেয়ে ভালো”

লর্ডসে ভালো করতে চান তামিম

কারস্টেনকে বিমোহিত করেছেন সবাই

পরামর্শকই কারস্টেনের ভূমিকা