SCORE

সর্বশেষ

এবার ইডেনও দেখল গেইল-ঝড়

নিলামে কোনো দিলই যখন গেইলকে কিনছিল না, তখন কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে টোপটা দিয়েছিলেন বীরেন্দ্র শেবাগ। সেই টোপটা যে এতো কার্যকরী হবে কে জানত!

এবার ইডেনও দেখল গেইল-ঝড়

আইপিএলে যে গেইল-শো চলছেই! টানা বিধ্বংসী দুটি ইনিংস উপহার দেওয়ার পরের ম্যাচে শনিবার আবারও চওড়া হয়েছিল গেইলের ব্যাট। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ৯ উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থানে আরোহণ করেছে পাঞ্জাব।

Also Read - টি-২০ কম বলেই বাংলাদেশের এমন সিদ্ধান্ত

পাঞ্জাবের এই জয়ে অবশ্য গেইলের চেয়েও বেশি অবদান লোকেশ রাহুলের। ৯ চার ও ২ ছক্কার সহায়তায় তার ২৭ বলে ৬০ রানের ইনিংসই বেশি অবদান রাখে জয় তুলে আনতে। ২২২.২২ স্ট্রাইক রেটে লোকেশের ব্যাট করার দিনে আরেক ওপেনার গেইলের স্ট্রাইক রেট ছিল ১৬৩.১৫। ৫ চার ও ৬ ছক্কার সাহায্যে ৩৮ বলে ৬২ রান করে অপরাজিত থাকেন গেইল। যদিও ম্যাচ সেরা হন সুনীল নারাইনের বলে উইকেট খোয়ান লোকেশই।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৯১ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় কলকাতা নাইট রাইডার্স। ৬টি চার ও ৪টি ছক্কার মাধ্যমে ৪১ বলে ৭৪ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন ক্রিস লিন, যদিও সেটি কাজে আসেনি দল পরাজিত হওয়ায়। অন্যান্যদের মধ্যে দীনেশ কার্তিক ৪৩ ও রবিন উথাপ্পা ৩৪ রান করেন। পাঞ্জাবের পক্ষে অ্যান্ড্রু টাই ও বারিন্দার স্রান দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

বৃষ্টির কারণে ম্যাচে বিঘ্ন ঘটলে পাঞ্জাবের সামনে জয়ের জন্য লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৩ ওভারে ১২৫ রান। জয়ের জন্য ওভারপ্রতি সাড়ে ৯ রানেরও বেশি প্রয়োজন ছিল। তবে সেই লক্ষ্য মামুলী হয়ে দাঁড়ায় গেইল ও লোকেশের ব্যাটিং তাণ্ডবে। শেষদিকে লোকেশ সাজঘরে ফিরলেও মায়াঙ্ক আগারওয়ালকে নিয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন গেইল। ফলে ঘরের মাঠেই কলকাতার পরাজয় মেনে নিতে হয় ইডেনের দর্শকদের।

ম্যাচটির স্কোরকার্ড-

আরও পড়ুনঃ সাইফউদ্দিন নাকি আরিফুল— দ্বিধায় নির্বাচকরা

Related Articles

টিকে থাকার লড়াইয়ে মুখোমুখি কলকাতা-রাজস্থান

সাকিবদের হারিয়ে ফাইনালে চেন্নাই

সাকিবের কাছে হার মানলেন রশিদ

চেন্নাইয়ের বিপক্ষে সাকিবদের ফাইনালে ওঠার লড়াই

নিজে হারলেও মুম্বাইয়ের পরাজয়ে প্রীত প্রীতি!