SCORE

সর্বশেষ

চেন্নাইয়ের কাছে হেরে আইপিএল শুরু মুস্তাফিজদের

পরাজয় দিয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ শুরু করেছে বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমানের দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। শনিবার এগারতম আইপিএলের উদ্বোধনী ম্যাচে প্রতিপক্ষ চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে ১ উইকেটে হেরে গেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে জয়ের খুব কাছে গিয়েও জয়বঞ্চিত থাকে মুম্বাই। মুস্তাফিজের করা শেষ ওভারে টানা দুই বলে ছক্কা ও চার হাঁকিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় চেন্নাই।

নাটকীয় জয়ের পর উদযাপনে চেন্নাই শিবির।
নাটকীয় জয়ের পর উদযাপনে চেন্নাই শিবির।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে স্বাগতিক মুম্বাই। শূন্য রানে ওপেনার এভিন লুইস ফিরে যাওয়ার একটু পর সাজঘরে ফেরেন অধিনায়ক রোহিত শর্মাও। দ্রুত দুই ওপেনারকে হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে যায় মুম্বাই।

তবে সেই চাপ জয় করেন ঈশান কিষাণ ও সূর্যকুমার যাদব। তৃতীয় উইকেটে দুজনে গড়ে তোলেন ৭৮ রানের পার্টনারশিপ। ছয়টি চার ও একটি ছক্কায় ২৯ বলে ৪৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন যাদব। তার কিছুক্ষণ পর প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন চারটি চার ও একটি ছক্কার সহায়তায় ৪০ রান করা ঈশান। এরপর হার্দিক পান্ডিয়ার ২০ বলে ২২ ও ক্রুনাল পান্ডের ২২ বলে ৪১ রানের ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেট হারানো মুম্বাই সংগ্রহ করে ১৬৫ রান। ক্রুনালের ইনিংসে ছিল পাঁচটি চার ও দুটি ছক্কা।

Also Read - রাজশাহী কিংসের কোচ হলেন ভেট্টোরি

চেন্নাই সুপার কিংসের পক্ষে দুটি উইকেট শিকার করেন শেন ওয়াটসন। একটি করে উইকেট লাভ করেন ইমরান তাহির ও দীপক চাহার।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দুই ওপেনার শেন ওয়াটসন ও আম্বাতি রাইডু ভালো শুরুর ইঙ্গিত দিলেও দুজনই বিদায় নেন বড় ইনিংসের ইঙ্গিত দিয়ে। কেদার যাদব রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে বিদায় নিলে বিপদ আরও ঘনীভূত হয় চেন্নাইয়ের। একে একে সাজঘরে ফেরেন টপ অর্ডার ও মিডল অর্ডারের সব নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান। দলীয় ৫০ রানের মধ্যে তিন উইকেট ও ১০০ রানের মধ্যে ৬ উইকেট হারায় চেন্নাই সুপার কিংস।

১১৮ রানের মাথায় মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন দল অষ্টম উইকেট হারানোর পর মুম্বাইয়ের জয়কে মনে হচ্ছিল কেবল সময়ের ব্যাপার। তবে শেষদিকে খেলা জমিয়ে তোলেন ডোয়াইন ব্রাভো। একের পর এক চার-ছক্কা হাঁকাতে থাকলে জয় নিয়ে শঙ্কায় পড়ে যায় মুম্বাই। তিনটি চার ও সাতটি ছক্কার সাহায্যে ৩০ বলে ৬৮ রান করার পর নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্রাভো যখন প্যাভিলিয়নে ফেরেন, ম্যাচ তখন দুলছে পেন্ডুলামের মতো।

জয়ের জন্য শেষ ওভারে চেন্নাইয়ের প্রয়োজন ছিল ৭ রান। গুরুত্বপূর্ণ এই সময়ে মুস্তাফিজের উপরই ভরসা করেন মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত। নিজের চতুর্থ ও ম্যাচের শেষ ওভারের প্রথম তিন বলে কোনো রান দেননি কাটার মাস্টার। তবে চতুর্থ বলে তাকে ছক্কা হাঁকান কেদার যাদব। এর পরের বলে চার হাঁকিয়ে চেন্নাইকে ১ বল ও ১ উইকেট হাতে রেখে অবিশ্বাস্য এক জয় এনে দেন তিনি।

৩.৫ ওভার বল করে ৩৯ রান খরচার বিনিময়ে একটি উইকেট শিকার করেন মুস্তাফিজ। হার্দিক পান্ডিয়া এবং মায়াঙ্ক মারাকান্দে শিকার করেন তিনটি করে উইকেট। বল হাতে প্রথম দুই ওভারে ভালো করা মুস্তাফিজ মার্ক উডকে সাজঘরে ফিরিয়েছিলেন হার্দিকের বলে তালুবন্দী করে। তবে শেষ ওভারে দলকে জয় এনে দিতে না পারায় বৃথা গেছে তার সব অবদান।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ১৬৫/৪ (২০ ওভার); সূর্যকুমার ৪৩, ক্রুনাল ৪১, ঈশান ৪০, হার্দিক ২২, রোহিত ১৫ ; ওয়াটসন ২৯/২, চাহার ১৪/১, তাহির ২৩/১

চেন্নাই সুপার কিংস ১৬৯/৯ (১৯.৫ ওভার); ব্রাভো ৬৮, কেদার ২৪*, রাইডু ২২, ওয়াটসন ১৬; মারাকান্দে ২৩/৩, হার্দিক ২৪/৩, বুমরাহ ৩৭/১, মুস্তাফিজ ৩৯/১

ফল- চেন্নাই সুপার কিংস ১ উইকেটে জয়ী। 

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ: ডোয়াইন ব্রাভো (চেন্নাই সুপার কিংস)

আরও পড়ুনঃ ভারতকে হারিয়ে উড়ন্ত সূচনা বাংলাদেশের

Related Articles

ইয়ো ইয়ো টেস্টে বাদ পড়লেন ভারতের স্টার ক্রিকেটার

কোহলি নন, মোহাম্মদ নবীর প্রিয় ডি ভিলিয়ার্স

পরিবারের সান্নিধ্যে ঈদ, তবু মুস্তাফিজের আক্ষেপ

ভাগ্যকেই দোষারোপ করছেন মুস্তাফিজ

ঈদের পর অনুশীলন শুরু করবেন মুস্তাফিজ