SCORE

সর্বশেষ

ডেথ ওভারে মুস্তাফিজদের আনা ভুল সিদ্ধান্ত!

চলমান ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত তিনটি ম্যাচ খেলেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স, অথচ জয় আসেনি একটি ম্যাচেও। জয়ের আভাস গড়েও জয়ের দেখা আর পাওয়া যায়নি তিন ম্যাচের সবকটিতেই ডেথ ওভারে প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানের কৌশলী ব্যাটিংয়ে।

 

ডেথ ওভারে মুস্তাফিজকে আনা 'ভুল সিদ্ধান্ত'!
মুস্তাফিজুর রহমান (ডানে) ও জাসপ্রিত বুমরাহ (বাঁয়ে)। ছবি: ইন্টারনেট

ডেথ ওভারগুলোতে মুম্বাই অধিনায়ক রোহিত শর্মা বল তুলে দেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মুস্তাফিজুর রহমান ও ভারতীয় পেসার জাসপ্রিত বুমরাহর হাতে। ভারত জাতীয় দলের সাবেক পেসার ও চলমান আইপিএলের বিশ্লেষক জহির খানের মতে, মুস্তাফিজকে ডেথ ওভারে বল তুলে দিয়ে ভুল সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন রোহিত। একই কথা তিনি বলেছেন বুমরাহর ক্ষেত্রেও। তার মতে, ডেথ ওভারের চেয়ে এই দুই বোলারকে প্রথম দিকে আক্রমণে আনাই কার্যকর হতো।

Also Read - কোড অব কন্ডাক্ট ভেঙে বিপাকে শাহজাদ

জহির খান বলেন, ‘ইনিংসের শুরুর দিকে দলের সেরা বোলার মুস্তাফিজ-বুমরাহকে ব্যবহার করছে না রোহিত। সে তাদেরকে ডেথ ওভারের জন্য রেখে দিচ্ছে। অথচ তাদের ইনিংসের শুরুর দিকের বোলিং দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দেয়। শুরুর দিকেই তাদের ব্যবহার করলে উইকেট পেত এবং ম্যাচের ফলাফল অন্য রকম হতে পারত। তারা শুরুর দিকে বোলিং করলে প্রতিপক্ষের উইকেট আরও বেশি পড়ত।’

শুরুর দিকে মুস্তাফিজ এবং বুমরাহ বল করলে প্রতিপক্ষের রান আটকানো সম্ভব হতো বলে অভিমত জহিরের। সেই সাথে দুজন মিলে দ্রুত উইকেটও তুলে ফেলতে পারতেন বলে মনে করেন তিনি। জহির বলেন, ‘শুরুর দিকে মুস্তাফিজ-বুমরাহ বোলিং করলে শেষ ওভারে ১১ রানের জায়গায় হয়তো ১৭-১৮ রান থাকত। শুরুতে হার্দিক এবং অাকিলা ধনঞ্জয়াকে বোলিং করিয়েছে রোহিত। ওরা কিন্তু মুম্বাইয়ের স্ট্রাইক বোলার নয়। শুরুর দিকে উইকেট পড়ে গেলে শেষের দিকের ব্যাটসম্যানরা স্বাভাবিকভাবেই চাপে থাকে।’

তবে ডেথ ওভারের দুঃস্মৃতি পুষে রাখা মুস্তাফিজ তিন ম্যাচেই দারুণ পারফরমেন্স প্রদর্শন করেছেন। সেদিকে ইঙ্গিত করে জহির খান বলেন, ‘প্রতি ম্যাচেই ফিজ দারুণ শুরু করেছেন। বোঝাই যায় সে শুরুর দিকে তছনছ করে দেওয়ার মতো বোলার।’

আরও পড়ুনঃ নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুস্তাফিজ

Related Articles

টিকে থাকার লড়াইয়ে মুখোমুখি কলকাতা-রাজস্থান

সাকিবদের হারিয়ে ফাইনালে চেন্নাই

সাকিবের কাছে হার মানলেন রশিদ

চেন্নাইয়ের বিপক্ষে সাকিবদের ফাইনালে ওঠার লড়াই

নিজে হারলেও মুম্বাইয়ের পরাজয়ে প্রীত প্রীতি!