SCORE

সর্বশেষ

বিসিএলের দ্বিতীয়ার্ধ: সামর্থ্য প্রমাণের শেষ সুযোগ!

ঘরোয়া ক্রিকেটকে বলা হয় জাতীয় দলের মেরুদণ্ড। আসলেই তাই। ঘরোয়া ক্রিকেটে যারা ভালো পারফরমেন্স প্রদর্শন করেন, পরবর্তীতে জাতীয় দলে সুযোগ পান তারাই। জাতীয় দলকে দাঁড় করিয়ে রাখার এই কৃতিত্বটা তাই ঘরোয়া ক্রিকেটেরই প্রাপ্য।

বিসিএলের তিন রাউন্ডের সূচি প্রকাশ

একে একে ২০১৭-১৮ মৌসুমের প্রায় সবগুলো ঘরোয়া আসর শেষ হয়েছে। বাকি রয়েছে কেবল বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের শেষ তিন রাউন্ডের খেলা, মাসখানেকের বিরতি শেষে যার চতুর্থ রাউন্ড শুরু হচ্ছে ১০ এপ্রিল থেকে।

Also Read - জয় দিয়েই হায়দরাবাদের হয়ে আইপিএল শুরু সাকিবের

চলতি বছর বেশ কিছু প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলতে হবে জাতীয় দল ও ‘এ’ দলকে। নিজেদের সামর্থ্য প্রমাণ ও প্রথম সারির দল দুটিতে জায়গা করে নেওয়ার জন্য ক্রিকেটাররা শেষ সুযোগ হিসেবে পাচ্ছেন তাই এই বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগ বা বিসিএলকেই। সোমবার সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে সেই কথাটিই আবার মনে করিয়ে দিলেন প্রধান নির্বাচক ও জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু।

বিসিএলকে একইসাথে প্রস্তুতির শেষ সুযোগ হিসেবেও দেখছেন নান্নু। কেননা এরপর নিজেকে প্রমাণের জন্য এই মৌসুমে কোনো সুযোগ পাচ্ছেন না ক্রিকেটাররা। নান্নু বলেন, ‘সামনে ঠাসা সূচি আমাদের, প্রচুর খেলা। বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচের জন্যও অনেক খেলোয়াড় দরকার আমাদের। তা ছাড়া সামনে জাতীয় ও ‘এ’ দলের খেলার আগে বড় দৈর্ঘ্যের প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচ খেলার শেষ সুযোগ এই বিসিএলই। আশা করছি যারা রানে আছে, রানেই থাকবে। যারা নেই, তারাও রানে ফিরবে।’

শুধু জাতীয় দলই নয়, ‘এ’ দলে জায়গা করে নেওয়ার ক্ষেত্রেও ক্রিকেটারদের নিজেকে প্রমাণের মঞ্চ বিসিএলের দ্বিতীয়ার্ধ বা বাকি অর্ধ। নান্নু বলেন, ‘জুনের ২৫ তারিখ থেকে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের সঙ্গে সিরিজ। তিনটি চার দিনের ম্যাচের সিরিজ আছে। আগেও বললাম, তার আগে শেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট বিসিএলই। কাজেই এখানে ভালো করে অনেকেই আমাদের বিবেচনায় চলে আসতে পারে। আশা করি, ভালো করে ছেলেরা এই সুযোগটি নিতে চাইবে।’

আরও পড়ুনঃ বল হাতে আইপিএলে সাকিব ঝলক

Related Articles

দুর্জয়ের এইচপি ইউনিট ভাবনা

এবারও অভিজ্ঞদের ছাড়াই ‘এ’ দল

এ দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্বে শান্ত

ম্যাচবিহীন ‘এ’ দল, এইচপিতে মনোযোগ