SCORE

সর্বশেষ

এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ আফ্রিকানদের

সিরিজের ২য় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলকে ৩২ রানে হারিয়ে তিন ম্যাচের সিরিজ নিজেদের করে নিল স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।

টস জিতে স্বাগতিকদের ব্যাটিং করতে পাঠান সফরকারী দলের কাপ্তান সালমা খাতুন। শুরুটা বেশ ভালোই করে বাংলাদেশ। প্রথম ওভারেই মাত্র চার রানে ফিরে যান লি। তাঁকে ফেরান নাহিদা আকতার। পঞ্চম ওভারে দলীয় ৩৫ রানে আরেক ওপেনার ব্রিটসকে রুমানা আহমেদের ক্যাচ বানিয়ে ফেরত পাঠান পান্না ঘোষ।

Also Read - নিদাহাস ট্রফির ফাইনালের ইনিংস আত্মবিশ্বাস দিবে সাব্বিরকে

এরপর স্বাগতিক দলের কাপ্তান নিকার্ক ও তিন নম্বরে নামেন লুস। তাদের ৯৬ রানের পার্টনারশীপে ভর করে বড় স্কোর পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৩১ রানে কাপ্তানকে আউট করে তাদের জুটি ভাঙ্গেন নাহিদা আক্তার। বোল্ড হওয়ার আগে ৪২ বলে ১১ চার আর এক ছয়ে ৬৬ রান করেন নিকার্ক।

শেষ ওভারে সর্বোচ্চ ৭১ রান করে আউট হন লুস। ৫৭ বল খেলে ৯টি চার মারেন তিনি। ১৬৯ রানে থামে আফ্রিকানদের স্কোর। বাংলাদেশের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন পান্না ঘোষ ও নাহিদা আক্তার।  জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের শুরুটাও ভালো হয় নি। ২১ রানে ড্রেসিং রুমে ফিরে যান সানজিদা ও রুমানা। এরপর দলের হাল ধরেন ফারজানা ও শামিমা। তাদের জুটিতে ভালো এগিয়ে যাচ্ছিল বাংলাদেশ।

কিন্তু ১৪ তম ওভারে ফারজানা ৩৭ বলে ৩৭ রান করে আউট হলে খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। থেমে যায় রানের চাকা। ৪৩ বলে ৫০ করে আউট হয়ে যান শামিমা আক্তার। প্রথম বাংলাদেশি নারী ক্রিকেটার হিসেবে ফিফটি করেন তিনি। শেষদিকে আর কেউ হাল ধরতে না পারলে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রানে থামে বাংলাদেশের ইনিংস, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ।

 

স্কোরকার্ডঃ

দক্ষিণ আফ্রিকা

১৬৯/৪ ( ২০ ওভার )

লুস ৭১, নিকার্ক ৬৬

নাহিদা ২/৩২ , পান্না ২/৩২

বাংলাদেশ

১৩৭/৫ ( ২০ ওভার )

শামিমা ৫০ , ফারজানা ৩৭

ইসমাইল ২/ ২৯

 

আরো পড়ুনঃ বিসিবিকে ধন্যবাদ দিলেন মাশরাফি

Related Articles

“খেলায় আপস অ্যান্ড ডাউনস থাকবেই”

বিদ্রোহ ভাঙলেন জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটাররা

আফসোসের আগুনে পুড়ছেন আরিফুল

স্কটিশদের বিপক্ষে পাকিস্তানের ৪৮ রানের জয়

ব্যাট-বল হাতে সেরা পাঁচে রুমানা